আশা জাগিয়েও পারল না বাংলাদেশ

ক্রাইমবার্তা স্পোর্টস ডেস্ক: সাব্বির রহমান ও সৌম্য সরকারের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয়ের আশা জাগিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। সৌম্য-সাব্বির জুটির ভাঙন ধরানোর পর সেই আশার আলো নিভু নিভু করতে থাকে। ফলে জয়ের আনন্দে ভাসে নিউজিল্যান্ড। ৪৭ রানে জয়লাভ করেছে কিউইরা। এর ফলে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজও জিতে নিলো স্বাগতিকরা।

সকালে নিউজিল্যান্ডের দেয়া ১৯৬ রানের চ্যালেঞ্জ তাড়া করতে নেমে শুরুতেই সাজঘরে ফিরেন ইমরুল কায়েস। তার বিদায়ের পর আশা জাগিয়ে ছিলেন তামিম ইকবাল। ৭ বলে দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তার সাথে ছিলেন সাব্বির রহমান। তিনিও যোগ্য সঙ্গীর প্রমাণ দিচ্ছিলেন। তবে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি এ জুটি।

রান আউট হন তামিম ইকবাল। তার পর ক্রিজে আসেন সাকিব আল হাসান। ১ রান করে সাজঘরে ফিরেন তিনিও।

তবে ক্রিজে ছিলেন সাব্বির রহমান। তার সাথে জুটি বাধেন রান খরায় ভোগা সৌম্য সরকার। এদিন কিছু সময়ের জন্য হাসে তার ব্যাট। সঙ্গী সাব্বিরের সাথে দ্রুত রান তুলেন তিনি।

চার-ছক্কার ঝড় তুলেছিল এ জুটি। ৬ ওভারে এ জুটির সংগ্রহ ছিল ৬৮ রান। প্রতি ওভারেই চার-ছক্কার ফুলঝড়ি উড়িয়ে ছিলেন তারা। এর সুবাদে দ্রুত দলের সংগ্রহ শতক ছাড়িয়েছিল।

তবে ১১তম ওভারে এ জুটির ভাঙন ঘটান ট্রেন্ট বোল্ট। ৩৯ রানে সৌম্যকেফেরান তিনি।

দলের সংগ্রহ তখন ১০৮ রান। জয়ের জন্য দরকার ছিল ৮৮ রান। ওভার ছিল আরো ৯টি।

কিন্তু দুই ওভার পর ব্যক্তিগত ৪৮ রানে ফিরে যান চার-ছক্কার ঝড় তোলা সাব্বির রহমান।

বলা যায়, আশার আলো তখনি নিভে যায়।

এরপর বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকতে পারেননি আর কেউই।

শেষ হাসি হেসে মাঠ ছাড়ে নিউজিল্যান্ড।

এর আগে বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায় টস হেরে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড। ৭ উইকেট হারিয়ে তাদের সংগ্রহ ছিল ১৯৫ রান। শতক করেন কলিন মানরো। অর্ধশত করেন টম ব্রুস।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ চারটি উইকেট শিকার করেন পেসার রুবেল হোসেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments