সাতক্ষীরা রেঞ্জের সুন্দরবনে র‌্যব ও বনদস্যুর বন্দুকযুদ্ধ বাহিনী প্রধান সহ ২ বনদস্যু আটক, থানায় মামলা

ক্রাইমবার্তা রিপোট: মোস্তফা কামাল-শ্যামনগর ঃ সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের পশুরতরা নামক স্থানে আজ সোমবার সকালে র‌্যাব-৮ বরিশাল এর সহিত বনদস্যু নূরু বাহিনী আধা ঘন্টা বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বাহিনী প্রধান নূরু ও 20সেকেগন্ড কমান্ড আব্বাস অস্ত্রগুলি সহ আটক হয়। জব্দকৃত অস্ত্রগুলি সহ আটককৃতদের শ্যামনগর থানায় সোপর্দ পূর্বক র‌্যাব-৮ এর নায়েব সুবেদার আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে ২টিঁ নিয়মিত মামলা করেছেন। র‌্যাব-৮ এর নায়েব সুবেদার আমজাদ হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৭ সদস্যের একটি অভিযান দল ১২ ফেব্রুয়ারী রাত আনুমানিক ১১ টার সময় বরিশাল থেকে রওনা হয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারী ভোর ৫ টায় শ্যামনগরের মুন্সিগঞ্জ বন টহল ফাড়ির ঘাটে পৌছান। এরপর ২ টি জলযানে সুন্দরবনের পশুরতলা নামক খাল এলাকায় পৌছায়ে বাইনোকুলারের সাহায্যে বনের ভিতরে কয়েকজনকে ঘোরাফেরা করতে দেখে। তখন তারা জলযানের ভিতরে কৌশলগত অবস্থান নিয়ে তাদের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে। কাছাকাছি পৌছানো মাত্রই বনদস্যু নূরু বাহিনী গুলি বর্ষন করে, র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলিবর্ষন করে। এভাবে থেমে থেমে সকাল ৮ টা ৩০ থেকে সকাল ৯ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত গুলি বর্ষন চলে। একপর্য়ায়ে বনদস্যু গুলি বর্ষন বন্ধ করে  কৌশল অবলম্বন করে বনের ভিতরে পালিয়ে যেতে থাকে। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা হ্যান্ড মাইক দ্বারা আত্মসমর্পন এর আহবান জানালে ২ জন বনদস্যু অস্ত্র মাটিতে ফেলে হাত উচু করে আত্মসমর্পন করে। তারা  হলো সুন্দরবনের চিহ্নিত বনদস্যু নূরু বাহিনী প্রধান নুর হোসেন দালাল ওরপে নূরু (৩৩)  সে যশোর জেলার শার্শা উপজেলার বাগআচড়া গ্রামের মৃত জাকির আলী দালালের ছেলে, বর্তমানে কার স্থায়ী ঠিকানা খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলার বেনিপুকুর গ্রামে। তার সেকেন্ড ইন কমান্ড মোঃ আব্বাস আলী (৩৫), সে সাতক্ষীরা জেলার আলীপুর ঢালীপাড়া গ্রামের মৃত বশীর উদ্দীন গাজীর ছেলে। এ সময় বনদস্যু অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। আটক বনদস্যু নূরু বলে, তাদের সাথে কয়রা উপজেলার ২ নং কয়রার আইয়ুব ঢালী ও খুলনার ৩/৪ জন ছিল। তিনি আরও জানান, সে সুন্দরবনে মাছ ধরত, কিন্তু শ্যামনগরের কালিঞ্চি গ্রামের চেংগুস রবিউল বনদস্যু তাকে ১ মাস ১৮ দিন জিম্মি করে রাখার পর থেকে বনদস্যু হয়ে গেছে। আটক বনদস্যুদের স্বীকার-উক্তি মোতাবেক ৩ টি একনালা ও ১ টি দোনালা দেশীয় তৈরী বন্দুক যাহা কাঠের বাট যুক্ত, ২০ রাউন্ড বন্দুকের তাজা গুলি ও ৩০ রাউন্ড বন্দুকের গুলির খোসা জব্দ করে। এ ঘটনায় র‌্যাব-৮ বরিশাল এর নায়েব সুবেদার মোঃ আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে  ১৩ ফেব্রুয়ারী আটক ২ বনদস্যু সহ অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনকে আসামী করে ১৬ও ১৭ নং ২ টি মামলা দায়ের করা হয়।

শ্যামনগরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের
প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ ও লাঞ্চিত

শ্যামনগর ব্যুরোঃ শ্যামনগরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বিরোধের জের ধরে প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ ও লাঞ্চিত হওয়ার প্রতিকার চেয়ে ইউএনও বরাবর অভিযোগ করা হয়েছে।অভিযোগটি দায়ের করেন শ্যামনগরে ১৮১ নং চাঁদনীমুখা পূর্বপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম বারী। তিনি অভিযোগ পত্রে জানান, তার বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গত ১৯ জানুয়ারী রাত্র ৮ টার দিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একই গ্রামে জফর গাজীর পুত্র আঃ রহিম, নুরু গাজী, আলামিন, আলমগীর, মান্নান মোড়লের পুত্র হেলাল, আরশাদ মোড়লের পুত্র আব্দুল্লাহ, মতলেব শেখের পুত্র আরিফুল মটর সাইকেল যোগে প্রধান শিক্ষককে ভয় দেখিয়ে বাড়ি থেকে উঠিয়ে নিয়ে যান। আঃ রহিমের বাড়িতে নিয়ে ঘরে অবরুদ্ধ রেখে প্রধান শিক্ষক গোলাম বারীকে মারধর করে লাঞ্চিত করা হয়। আঃ রহিমকে সভাপতি করা না হলে তাকে মিথ্যা হয়রানীমূলক মামলা ও গুম সহ নানা প্রকার ভয় ভীতি দেখানো হয় এ ঘটনায় শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে প্রতিকারের আবেদন করা হলে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের নিমিত্তে শ্যামনগর থানার ওসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments
Please follow and like us: