বাংলাদেশের নিরাপত্তা অন্য দেশের হাতে দেয়া হচ্ছে, অভিযোগ রিজভীর

ক্রাইমবার্তা রিপোট:বাংলাদেশের নিরাপত্তা অন্য দেশের হাতে তুলে দেয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে বরে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন। সংগঠনের সভাপতি শামা ওবায়েদের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
16
বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১১তম কারাবন্দি দিবস’ উপলক্ষে এ সভায় তিনি বলেন, আগামী মাসে প্রধানমন্ত্রী ভারত সফরে যাবেন। ওই সফরে তিনি বেশ কয়েকটি চুক্তি করবেন। কিন্তু চুক্তিগুলোর ভিতরের খবর জানানো হচ্ছে না। তবে ভারতের একটি পত্রিকায় এসেছে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রতিরক্ষা চুক্তি হবে। এ চুক্তির মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশের নিরাপত্তা অন্য দেশের হাতে তুলে দেয়া হবে- অভিযোগ রিজভীর। বলেন, বাংলাদদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রতিরক্ষা চুক্তি হলে তাদের কথা ও সিধান্ত অনুযারি আমাদের চলতে হবে। এর ফল আমাদের স্বাধীনতা থাকবে না।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে সর্তক দৃষ্টি রাখতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন তিনি। বলেন, চুক্তি করে আমাদের চিরস্থায়ীভাবে গোলাম বানাতে চায়। সুতরাং আমাদের সর্তক থাকতে হবে। আর প্রয়োজনে প্রতিরোধ ও সংগ্রাম করে এগুলো রুখে দিতে হবে।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, ভারত বলছে, চুক্তি হবে। কিন্তু চুক্তি শব্দ টাই বিপদজনক। এসমস্ত চুক্তির মধ্যে দিয়ে আমাদের প্রতিরক্ষা স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে ভারতের প্রতিরক্ষা প্রতিষ্ঠিত করা হবে। তাহলে আমাদের স্বাধীনতা কোথায়- প্রশ্ন রাখেন তিনি।

আমাদের নিরাপত্তা কেনো ভারতের উপর নির্ভরশীল হবে- বলেও প্রশ্ন রাখেন তিনি।

তিনি বলেন, ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু ভষণ দিয়েছেন। কত হুইচই করে পাড়ার ও মহলায় সেটা বাজানো হচ্ছে। কিন্তু আমাদেরকে তারেক রহমানের পোষ্টারও টানাতে দেওয়া হয়না।

জবরদস্তি করে আইন করে বঙ্গবন্ধুকে জাতির পিতা বানানো হয়েছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, সুস্পষ্টভাবে ৭ মার্চের ভাষণে স্বাধীনতার ঘোষণা নেই। এমনকি বক্তব্যের শেষে জয় বাংলা ও জয় পাকিস্তান বলেছেন তিনি। তবে বক্তব্যে উদ্দীপনা রয়েছে। গায়ের জোরে এবং বিচারবিভাগেরর কাঁধে বন্দুক রেখে ইতিহাস কাটিং করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তার।

Please follow and like us:
Facebook Comments