শ্যামনগরে ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ বন্ধ

মোস্তফা কামাল ঃ 2শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুজ্জামান এর নির্দেশে ও আটুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সালেহ বাবু‘র হস্তক্ষেপে মেধাবী ছাত্রী চম্পা খাতুন (১৫) কে বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে। গত ১৬ জুলাই হাওয়াল ভা্গংী গ্রামের আহম্মদ আলি গাজীর কলেজ পড়–য়া কন্যা চম্পা খাতুন এর সহিত কাশিমাড়ীর জিন্নাত আলি পাড়ের পুত্র খলিলুর রহমানের বিবাহ হওয়ার কথা ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুজ্জামান জানতে পেরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবু সালেহ বাবু‘র মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে জরুরী পদক্ষেপ নিতে বলেন। চেয়ারম্যান আবু সালেহ বাবু কণ্যার পিতাকে তলব করেন এবং কণ্যা সহ ইউএনও কার্যালয়ে পাঠালে বিবাহ বন্ধ করে সরকারি নিয়মানুসারে বয়স না হওয়া পর্যন্ত কন্যাকে বিবাহ দেওয়া যাবে না মর্মে তার পিতার কাছ থেকে অঙ্গিকার নেওয়া হয়। কণ্যার পিতা আহম্মদ আলি গাজী জানান, এ প্লাস পাওয়া কণ্যা চম্পা খাতুনের বই ক্রয় ও পড়াশুনার খরচ যোগাতে ব্যর্থ হয়ে শ্বশুরবাড়ীতে পড়াশুনার প্রতিশ্রুতিতে বাল্য বিবাহ দিতে সম্মত হই, অথচ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বিবাহটি বন্ধ হয়। শ্যামনগর সরকারি মহসিন ডিগ্রী কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী হওয়ায় লেখাপড়ার খরচ যোগাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করা হলে তিনি উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট বিষয়টি বিবেচনার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। এ ধরনের উদ্যোগকে সুশীল সমাজ ইউএনও ও ইউপি চেয়ারম্যান কে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments