ইছামতির বাধ ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী

মীর খায়রুল আলম:3
নওয়াপাড়া সীমান্তে ইছামতি নদীর বাধ রক্ষার কাজ পরিদর্শন করলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঢাকার প্রধান প্রকৌশলী একেএম ওয়াহিদ উদ্দীন চেীধুরী। বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ উক্ত স্থানটি পরিদর্শন করেন। উল্লেখ্য যে, ইছামতি নদীর নওয়াপাড়া সীমান্তের বেড়িবাধে ভয়বাহ ফাটল দেখা দিলে স্থানীয় সংবাদপত্রে সংবাদ প্রকাশ হয়। তারই সুত্র ধরে পানি উন্নয়ন বোর্ড স্থানটি অতি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় বাধ রক্ষায় ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। ইছমতি নদীর পানির চাপ বৃদ্ধির সাথে বেড়িবাধ অতি মাত্রায় ভেঙ্গে যাওয়ায় যে কোন মুহূর্ত প্লাবিত হওয়ার আশংঙ্কা বেড়ে যাওয়ায় এবং কাজের অগ্রগতি বিষয়ে পরিদর্শনে আসেন তিনি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ- বিভাগীয় প্রকৌশলী রাশিদুর রহমান, তত্ত্বাবোধায়ক প্রকৌশলী বজলুর রশিদ, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড-১এর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মমিন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী ওবায়দুল হক মল্লিক, কার্য-সহকারী সফিকুল ইসলাম, বিশিষ্ট মৎস্য খামার ব্যবসায়ী ও নওয়াপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহমুদুল হক লাভলু, নাংলা ফতেমা রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি এনামুল হক প্রমূখ। সরেজমিন পরিদর্শন শেষে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঢাকার প্রধান প্রকৌশলী একেএম ওয়াহিদ উদ্দীন চেীধুরী বলেন, ইছামতির তীরে নদীর বাধ রক্ষায় নওয়াপাড়া এলাকার বেড়ি বাধ রক্ষায় আপাতত ২১০ মিটার বাশের পাইলিং ও বালুর বস্তা দিয়ে ভাঙ্গন রোধ করা হচ্ছে। তিনি সাংবাদিকদের আরো জানান, নদীর বেড়িবাধ রক্ষায় নির্দিষ্ট কোন এলাকা নয় যেখানে সমস্যা দেখা দেবে সেখানেই ভাঙ্গন রোধে কাজ করা হবে। বর্তমান সরকার উন্নয়নমূখি সরকার তাই তার প্রচেষ্টায় নদীর বেড়িবাধ রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারায় নওয়াপাড়া সীমান্তে বেড়িবাধে কাজ শুরু হয়েছে। উক্ত কাজটি সঠিক ভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন তিনি। তাছাড়া এ কাজে অনিয়ম না হয় সে ব্যাপারেও ঠিকাদারের কঠোর নির্দেশ প্রদান করেন। ##

Please follow and like us:
Facebook Comments