বোর্ডের সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছেছেন ক্রিকেটাররা নির্ধারিত সময়েই বাংলাদেশে আসবে অস্ট্রেলিয়া

অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান হল। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছেছেন ক্রিকেটাররা। ফলে নির্ধারিত সময়েই বাংলাদেশ সফর করবে স্টিভ স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নাররা।aus_54082_1501738109

বৃহস্পতিবার সকালে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্যে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এদিন মেলবোর্নে বেতন-ভাতা নিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) ও অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (এসিএ) মধ্যে চলমান যুদ্ধের অবসান হয়। শেষবারের মতো বৈঠকে বসে বোর্ড ও ক্রিকেটাররা। সেখানেই তারা নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তিতে পৌঁছেছেন।

তবে নতুন চুক্তি ও পাঁচ বছরের সমঝোতা স্মারকে কী রয়েছে সে বিষয়ে বিকালে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হবে।

এদিকে দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ১৮ আগস্ট বাংলাদেশে আসার কথা অস্ট্রেলিয়া দলের। ফতুল্লায় ২২-২৩ আগস্ট দু’দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে অস্ট্রেলিয়া। এরপর আসল লড়াই। ঢাকায় প্রথম টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ২৭ আগস্ট। আর চট্টগ্রামে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হবে ৪ সেপ্টেম্বর।

এ সফর সামনে রেখে ১০ আগস্ট ডারউইনে শুরু হবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের ট্রেনিং ক্যাম্প।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার এই টেস্ট সিরিজ হওয়ার কথা ছিল ২০১৫ সালে। তবে দেশটির সরকারের সতর্কবার্তার কারণে বাংলাদেশ সফরে আসেনি অস্ট্রেলিয়া।

নিরাপত্তা নিয়ে শংকা প্রকাশ করে ২০১৬ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপেও অস্ট্রেলিয়া কোনো দল পাঠায়নি।

কিন্তু অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সফল আয়োজনের পর ইংল্যান্ড দলের বাংলাদেশ সফরের সময় নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে আশ্বস্ত হয় অস্ট্রেলিয়া। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের নিরাপত্তা প্রধান শন ক্যারল নিজে বাংলাদেশে এসে নিরাপত্তা পরিস্থিতি ও পরিকল্পনা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে গেছেন। তার প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই এ বছরের শুরুতে বাংলাদেশ সফরের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিএ।

সফরকে সামনে রেখে জুন মাসে ১৩ সদস্যের শক্তিশালী দলও ঘোষণা করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

তবে বোর্ড ও ক্রিকেটারদের দ্বন্দ্বের কারণে আবারও শংকায় পড়ে এই সিরিজ।

গত ১ জুলাই থেকে ক্রিকেটারদের আগের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়। স্মিথদের দাবি, নতুন চুক্তিতে ২৩০ জনকেই আগের মতো বোর্ডের লভ্যাংশ দিতে হবে। কিন্তু সিএ শুধু শীর্ষ ১৭ জন ক্রিকেটারকে লভ্যাংশ দিতে চায়। এ নিয়ে শুরু হয় বোর্ডের সঙ্গে ক্রিকেটারদের দ্বন্দ্ব। অবশেষে সেই দ্বন্দ্বের অবসান হল।

অস্ট্রেলিয়া দল
স্টিভেন স্মিথ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার (সহ-অধিনায়ক), অ্যশটন অ্যাগার, হিল্টন চার্ট রাইট, প্যাট কামিন্স, পিটার হ্যান্ডসকম্ব, জশ হ্যাজলউড, উসমান খাজা, নাথান লায়ন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, জেমস পাটিনসন, ম্যাথু রেনশ, ম্যাথু ওয়েড।

Please follow and like us:
Facebook Comments