বেনাপোল দিয়ে দেশে ফিরল ২২ বাংলাদেশি নারী-পুরুষ ও শিশু 

বেনাপোল প্রতিনিধি
মিথ্যা প্রলোভনে পড়ে ভারতে পাচার হওয়ার এক বছর পর এক শিশু, এক পুরুষ ও ২০ বাংলাদেশি নারীকে বেনাপোলে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় পুলিশ। ভারতে তারা তালাস ও রেসকিউ ফাউন্ডেশন নামে শেল্টার হোমের হেফাজতে ছিল।
বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪ টায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছ।
 ফেরত আসারা হলো-কমলা বেগম, রাজিয়া, ফাতিমা খাতুন, রাবেয়া আক্তার, রিমা শেখ, নুর জাহান, আলিকা খাতুন, তাসলিমা খাতুন, লিপি খাতুন, সুবরনা আক্তার, লইয়া, শান্তি, রুকসানা, আসমা শেখ, নুসরাত জাহান, ফাতিমা সিকদার, মুক্তা, শিউলী খাতুন, লাভলী, জবেদা খাতুন, মিম শেখ ও রাজু আহমেদ। এদের বাড়ি খুলনা, নড়াইল, বাগেরহাট, বরিশাল, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, যশোর ও রাজশাহী জেলার বিভিন্ন এলাকায়।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ইনচার্জ ওমর শরীফ জানান, ভালো কাজের কথা বলে দালালরা তাদের সীমান্ত পথে ভারতে নিয়ে যায়। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ভারতের মুম্বাই শহর থেকে পুলিশ তাদের আটক করে জেলে পাঠায়। সেখান থেকে তালাশ ও রেসকিউ ফাউন্ডেশন নামে দুটি এনজিও সংস্থা তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেওয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটে তাদের ফেরত আনা হয়েছে।
 বেনাপোল পোর্ট থানা থেকে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার ও রাইটস যশোর তাদেরকে গ্রহণ করে ঠিকানা নামক একটি শেল্টার হোমে রেখে পর্যায়ক্রমে পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেবেন।
Please follow and like us:
Facebook Comments