নিরাপত্তার চাদরে মোড়ানো জেলার ৫৬১টি পূজামন্ডপ আজ থেকে শুরু হচ্ছে শারদীয় দূর্গোৎসব

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গোৎসবের শেষ মুহূর্তে আয়োজন চলছে মহা ধুমধাম, উৎসব মুখর পরিবেশ। পঞ্জিকা অনুযায়ী আজ ২৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দেবীদূর্গার ষষ্ঠী পূজা, ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার সপ্তমী, ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার অষ্টমী, ২৯ সেপ্টেম্বর শুক্রবার নবমী, ৩০ সেপ্টেম্বর শনিবার দশমী ও বিসর্জন মধ্যে দিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের বৃহৎতম ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা শেষ হবে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। এবার দেবী দুর্গা আসছেন নৌকায় চড়ে চড়ে এবং চলে যাবেনও দোলায়। হিংসা, বিদ্বেষ, অসুরিক শক্তিকে নির্মূল করে শান্তি, সম্প্রীতি, কল্যাণ, মঙ্গল দিক নির্দেশনা মা দুর্গার আগামী বার্তা, অশুভ শক্তিকে বিনাশ করণে মা দুর্গা প্রতি বছরই আগমন করেন। হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব হিসেবে দুর্গোৎসব বিবেচিত হলেও বর্তমান তা বাঙালি উৎসবে পরিণত হয়ে উঠেছে। চারিদিকে সাজ সাজ রব, সর্বত্র উৎসব মুখর পরিবেশ। দেশের অন্যান্য স্থানের ন্যায় সাতক্ষীরা জেলাতেও থেমে নেই দুর্গোৎসব। সাতক্ষীরা জেলা এবার ৫শত ৬১টি পূজা মন্ডবে ভাবগাম্ভির্যের মধ্যদিয়ে দুর্গোৎসব পালিত হচ্ছে। মন্ডবগুলোতে চলছে শেষ মুহুর্তে প্রস্তুতি, সার্বজনীন দুর্গোৎসবের ¯্রােত আর আনন্দধারা কেবল পূজা মন্ডব গুলোতে নেই, দূর্গোৎসব আর চাই নতুন পোশাক, নতুন আসবাব পত্র ফার্নিচার চলছে কেনাকাটা। শহরের বিপনী বিতান গুলোতে শেষ মুহূর্তের পূজার কেনাকাটা বেড়েছে। জেলার ৫৬১টি পূজা মন্ডবের মধ্যে সদর উপজেলায় ১০৬টি, কলারোয় উপজেলায় ৩৯টি, তালায় ১৭৭টি, আশাশুনী উপজেলায় ১০৪টি, দেবহাটা উপজেলায় ২১টি, কালিগঞ্জ উপজেলায় ৫২টি এবং শ্যামনগর উপজেলায় ৬২টি মন্ডবেপূজা উৎযাপন হবে বলে জানাগেছে। জেলা পূজা উৎযাপন কমিটি আহবায়ক সুভাষ চন্দ্র ঘোষ বলেন, প্রতিটি মন্দিরে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এবার শান্তি পূর্ণভাবে পূজা উৎযাপন হবে বলেও তিনি জানান। এছাড়া তিনি প্রতিটি মন্দিরে সরকারি বরাদ্দ ও প্রশাসনিক সহায়তা করায় বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ দেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments