ময়মনসিংহে চোর সন্দেহে পিটিয়ে শিশু হত্যা

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলায় জনতার সামনে চোর সন্দেহে এক কিশোরকে খুঁটিতে বেঁধে বাবা-ছেলে মিলে সাগর আহম্মেদ নামে এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গৌরীপুর থানার ওসি দেলোয়ার স্থানীয়দের বরাতে বলেন, সোমবার সকালে চরশিরামপুর গ্রামের গাউছিয়া নামের একটি মাছের হ্যাচারির মালিক আক্কাস আলী ও তার ছেলে কাইয়ুমসহ চার-পাঁচজন চোর সন্দেহে সাগরকে আটক করেন।

তিনি জানান, ডৌহাখলা ইউনিয়নের চরশিরামপুর গ্রামের আক্কাস আলী ও তার ছেলে কাইযুমের বিরুদ্ধে এই হত্যাকা- ঘটানোর অভিযোগ তুলেছে এলাকাবাসী।

নিহত সাগর আহম্মেদ গৌরীপুর উপজেলার নাটকঘর এলাকার মোহাম্মদ শিপন মিয়ার ছেলে। তার বয়স ১৬-১৭ বছর।

“তারা তাকে হ্যাচারির খুঁটিতে বেঁধে মারধর করেন। অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে তারা অটোরিকশায় করে নিয়ে যান। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হ্যাচারির পাশের একটি জঙ্গল থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।”

ডৌহাখলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল হক সরকার বলেন, “অনেকের মোবাইল ফোনে খুঁটিতে বাঁধা রক্তাক্ত কিশোরের মাথা নিচের দিকে হেলে পড়া ছবিটি আমি দেখেছি। অত্যন্ত নৃশংস এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গেফতার করতে হবে।”

সাগর ভাঙ্গারি কুঁড়িয়ে বেচতেন বলে জানিয়েছেন তার বাবা শিপন মিয়া।

তিনি বলেন, সাগর সোমবার ভাঙ্গারি কুঁড়াতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। সকালে জঙ্গল থেকে তার লাশ উদ্ধারের খবর পেয়েছেন বলে তিনি জানান।

ঘটনার পর থেকে আক্কাস আলীসহ অপরাধীরা সবাই পলাতক জানিয়ে ওসি দেলোয়ার বলেন, পুলিশ জড়িতদের আটকের চেষ্টা করছে।

Please follow and like us:
Facebook Comments