একই রশিতে ঝুলছে তরুণ-তরুণী

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় একই রশিতে ঝুলে দুই শ্রমিক তরুণ-তরুণী আত্মহত্যা করেছে।  উপজেলার সীমান্তবর্তী শাহবাজপুর ইউনিয়নের পাল্লাতল চা বাগানের ১০ নম্বর চা সেকশনে একটি ছায়াবৃক্ষের সঙ্গে রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় রোববার দুপুরে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করেছে।  নিহতরা হচ্ছে- চা বাগানের শ্রমিক সুদাম ধার্মী দাসের মেয়ে হৈমন্তী ধার্মী দাস (১৮) ও মিন্টু কেলীর ছেলে আকাশ কেলী (২০)।  পুলিশের ধারণা, ভোরের দিকে তারা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।  তবে কী কারণে তারা আত্মহত্যা করেছে তা নিশ্চিত না হলেও অনেকে মনে করছেন দুইজনের মধ্যে হয়তো প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবার মেনে না নেয়ায় শেষ পর্যন্ত প্রেমিক জুটি আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।  পুলিশ দুপুর ১টার দিকে লাশ দুটি উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুত শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।  থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সহিদুর রহমান নিহতদের পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, শনিবার রাতে তারা নিখোঁজ হয়।তারা রাত ১টা থেকে ভোর ৬টার মধ্যে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটিয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ দুজনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবার হয়তো তা মেনে নেয়নি। এজন্য তারা একসঙ্গে আত্মহত্যা করেছে।

Please follow and like us:
Facebook Comments