বাংলাদেশের দূতকে পাল্টা তলব করেছে ইসলামাবাদ

ঢাকা: ইতিহাস বিকৃত করে তৈরি ভিডিও পাকিস্তান হাই কমিশনের ফেইসবুকে প্রচারের ঘটনায় ঢাকায় দেশটির হাই কমিশনারকে তলবের পাল্টায় ইসলামাবাদও একই কাজ করেছে। ইসলামাবাদে বাংলাদেশের হাই কমিশনার তারিক আহসানকে বৃহস্পতিবার তলব করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়া ও সার্ক বিষয়ক মহাপরিচালক।
দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, উৎস স্পষ্ট নয় এমন একটি ঘটনা নিয়ে প্রতিবাদলিপিতে কূটনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত শব্দের ব্যবহার নিয়ে আমাদের প্রতিবাদ জানাতে এটা করা হয়।
হাই কমিশনারকে বলা হয়েছে যে, তৃতীয় পক্ষের শেয়ার করা একটি ভিডিওর দায়ভার ঢাকায় পাকিস্তান হাই কমিশনকে দেওয়া যায় না।
সম্প্রতি ঢাকায় পাকিস্তান হাইকমিশনের ফেইসবুক পেইজে শেয়ার করা একটি ভিডিওতে বলা হয়, “শেখ মুজিবুর রহমান নন, জিয়াউর রহমানই বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষক। আর বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর তাজউদ্দীন আহমেদ এ ব্যাপারে তখনকার মেজর জিয়াকে সমর্থন দেন।”
১৩ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছিল পাকিস্তান অ্যাফেয়ার্স নামে একটি ফেইসবুক পেইজে।
পাকিস্তান হাইকমিশনের ফেইসবুক পেইজে ওই ভিডিও শেয়ার করার পর বিষয়টি নিয়ে আলোচনার মধ্যে মঙ্গলবার ঢাকায় পাকিস্তানের হাই কমিশনার রফিউজ্জামান সিদ্দিকীকে তলব করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পররাষ্ট্র সচিব (বাইলেটারাল ও কনস্যুলার) কামরুল আহসান তার হাতে বাংলাদেশের প্রতিবাদলিপি ধরিয়ে দেন এবং ‘ইতিহাস বিকৃতির এই চেষ্টার’ বিষয়ে সতর্ক করে দেন।
বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা নিয়ে ‘অসৎ উদ্দেশ্যে বিভ্রান্তিকর’ ভিডিও প্রচারের ঘটনায় ইসলামাবাদকে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাইতে বলা হয়।
ওই দিন তলবে হাজিরা দিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নে হাই কমিশনার রফিউজ্জামান ‘নো কমেন্টস’ বলে চলে যান।
তবে সচিব কামরুল আহসান সাংবাদিকদের বলেছিলেন, পাকিস্তানের হাই কমিশনার দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, এ ঘটনা ‘অনিচ্ছাকৃত’ এবং তারা বিষয়টি ‘বুঝে উঠতে পারেননি’। তারা ভিডিওটি তাদের ফেইসবুক পেইজ থেকে সরিয়েও ফেলেছেন।

Facebook Comments
Please follow and like us: