মাছ শিকারের উৎসবে নেমেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার প্রায় দুইশ’ মানুষ

ক্রাইমবার্তা রিপোর্ট:মাছ শিকারের উৎসবে নেমেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার প্রায় দুইশ’ মানুষ। তবে পেশাদার শিকারী নয় তারা। সবাই শখের বশে মাছ শিকারে নেমেছেন। এ যেন আনন্দভরা কোনো মহাউৎসব।

আজ সোমবার দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বুকচিরে বয়ে যাওয়া পাহাড়ি নদী ভোগাইয়ে এমনই উৎসবের আমেজ দেখা যায়।

মাছ শিকারে আসা উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের মাছ শিকারীরা জানান, প্রতিবছর হেমন্তের এসব দিনে উপজেলাসহ আশপাশ এলাকার বিভিন্ন নদী ও খাল-বিলে তারা একযোগে মাছ শিকারে নামেন। পাড়া-প্রতিবেশী সবাই মিলে খেয়া জাল, বিছানো জাল, মশারি জাল, পলো ইত্যাদি মাছ ধরার ফাঁদ নিয়ে একযোগে হৈ-হল্লোর করে মাছ শিকারে নামেন তারা। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার ও সোমবার মাছ শিকারে নামেন ভোগাই নদীতে।

সোমবার দুপুরে উপজেলার শিমুলতলা হদিপাড়া (ক্ষত্রিয়পাড়া) এলাকা দিয়ে একযোগে প্রায় দুইশ’ অপেশাদার মাছ শিকারী ভোগাই নদীতে নামেন। এরপর প্রায় দুই কিলোমিটার ভাটি পর্যন্ত তারা মাছ শিকার করেন। শিকার করা বেশিরভাগ মাছই ছিল বোয়াল। এর মধ্যে তিনানী বাজারের আবু সালেহ মেম্বার পেয়েছেন এ শিকারী দলের সবচেয়ে বড় প্রায় ১০ কেজি ওজনের বোয়াল। এছাড়াও অনেকেই আইড়সহ অন্যান্য মাছ পেয়েছেন। অনেকেই আবার খালি হাতেও ফিরে গেছেন।

এসময় ভোগাই নদীর তীরবর্তী এলাকায় উৎসুক মানুষের ভির পড়ে যায়।

মাছ ধরতে আসা আসা কয়েকজন জানান, শখের বশেই তারা প্রতিবছর এভাবে একযোগে মাছ ধরার উৎসবে নামেন। যুগ যুগ ধরে তারা এ উৎসব পালন করে আসছেন। স্থানীয় ভাষায় যাকে ‘বাহৈত’ বলা হয়ে থাকে

Please follow and like us:
Facebook Comments