নেত্রকোনায় স্বামী হত্যায় স্ত্রী-প্রেমিককে ফাঁসি

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোর্ট:নেত্রকোনা: নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌর শহরের সাধুপাড়া এলাকায় সঞ্জয় সরকারকে (৩৫) হত্যার দায়ে তার স্ত্রী সীমা সরকার (২৬) ও তার প্রেমিক মো. আলমগীর মিয়াকে (২৮) ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। একই মামলায় আরেক আসামি সোহেল রানার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে খালাস দেয়া হয়।

মঙ্গলবার বেলা একটার দিকে নেত্রকোনার জেলা ও দায়রা জজ কেএম রাশেদুজ্জামান রাজা আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, দুর্গাপুর পৌর শহরের সাধুপাড়া এলাকার মৃত হরেন্দ্র সরকারের ছেলে সঞ্জয় সরকারের স্ত্রী সীমা সরকার একই উপজেলার তেলিপাড়া গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে মো. আলমগীর মিয়ার সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি টের পেয়ে সঞ্জয় তার স্ত্রী ও আলমগীরকে সতর্ক করেন। কিন্তু তারা সম্পর্ক চালিয়ে যান। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মতবিরোধ দেখা দেয়।

২০১২ সালের ২০ জানুয়ারি গভীর রাতে সীমা সরকার তার প্রেমিক আলমগীরকে নিয়ে সঞ্জয়কে শোয়ার ঘরে শ্বাসরোধে হত্যা করেন।

ঘটনার পরদিন সঞ্জয়ের ভাই বাদী হয়ে সীমা সরকার, মো. আলমগীর মিয়া ও বাদুয়া শ্রীপুর গ্রামের শাহজাহান সিরাজের ছেলে সোহেল রানাকে (২৫) আসামি করে দুর্গাপুর থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে ওই বছরের ২৯ এপ্রিল পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। ১৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে মঙ্গলবার দুপুরে সীমা ও আলমগীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাদের উভয়কে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যার আদেশ দেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments