মকবুল আহমাদ ফের ৩ দিনের রিমান্ডে

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদকে আবারো রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রমনা থানার একটি মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। এ ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। এ দিকে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি নূরুল ইসলাম বুলবুলসহ ৯ নেতাকে আরো একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ।
গতকাল মহানগর হাকিম আহসান হাবিবের আদালতে হাজির করে মকবুল আহমাদকে রমনা থানার ৩৭(১২)১২ নং মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে সিআইডি। আদালত জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
শুনানি শেষে জামায়াত আমীরের আইনজীবী এডভোকেট এসএম কামাল উদ্দিন বলেন, মামলাটি ২০১২ সালের। এ মামলায় পুলিশ একবার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছিল। ২০১৬ সালে আবার তা অধিকতর তদন্ত করছে সিআইডি। তিনি জানান, বয়োবৃদ্ধ মকবুল আহমাদকে খুব ভোরে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়। তিনি নানা রোগে ভুগছেন। অসুস্থতার কারণে স্বাভাবিকভাবে তিনি চলাফেরাও করতে পারেন না। অসুস্থতা ও বয়স বিবেচনায় তিনি জামিন দেয়ার আবেদন জানান। তিনি বলেন, দীর্ঘদিনেও এই মামলায় কোন অগ্রগতি নেই।  ইতিপূর্বে গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে কেউ কেউ আদালতে জবানবন্দীও দিয়েছে। তারা কোথাও মকবুল আহমাদের নাম বলেননি। তার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগও নেই। তারপরও রিমান্ডের আবেদন করা হয়। তিনি মকবুল আহমাদের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, তাকে হয়রানি করার জন্য সরকার বারবার রিমান্ড আবেদন করছে। কামাল উদ্দিন আরো জানান, জামায়াত আমীর দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। তিনিও দেশবাসীর জন্য দোয়া করছেন।
শুনানিতে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন এডভোকেট আবদুর রাজ্জাক, এডভোকেট পারভেজ হোসেন, এডভোকেট লুৎফর রহমান আজাদ, এডভোকেট আবু বকর প্রমুখ।
উল্লেখ্য, গত ৯ অক্টোবর রাজধানীর উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টর এলাকার একটি বাসা থেকে বাংলাদেশ জাময়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদ, সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমানসহ ৮ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর দুই মামলায় পাঁচদিন করে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। এরপর গত ৩০ অক্টোবর মতিঝিল থানার একটি মামলায় মকবুল আহমাদকে আরো ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।
নূরুল ইসলাম বুলবুলসহ ৯ নেতাকে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন: জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি নূরুল ইসলাম বুলবুলসহ ৯ নেতাকে কদমতলী থানার ৬৮(২)১৭ নং মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। মহানগর হাকিম কাজী কামরুল ইসলাম আগামী সোমবার (২০ নভেম্বর) শুনাীনর দিন ধার্য করেন।
উল্লেখ্য, গত ২৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ শাখার আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুল, নায়েবে আমীর মঞ্জুরুল ইসলাম ভূঁইয়া, সেক্রেটারি ড: শফিকুল ইসলাম মাসুদ, কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য আবদুস সবুর ফকিরসহ জামায়াতে ইসলামীর ৯ জন নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর দুই মামলায় ৬ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। এদিকে গত ১১ অক্টোবর মতিঝিল থানার একটি মামলায় নূরুল ইসলাম বুলবুলকে আরো ২ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

Please follow and like us:
Facebook Comments