সাতক্ষীরা ১ আসনের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী এড. মোহাম্মদ হোসেনের একান্ত সাক্ষাৎকার -তালা কলারোয়াকে  উন্নয়নের রোল মডেলে পরিনত করায় আমার লক্ষ

ফিরোজ হোসেন : আসন্ন একাদশ সাংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সাতক্ষীরা তালা কলারোয়া ১ আসনের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীরা মাঠ নেমেছে আগেভাগেই । এদের একজন বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টের খ্যাতিমান আইনজীবি এড.মোহাম্মাদ হোসেনও মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। তিনি ক্লিন ইমেজের জনপ্রিয়তার শীর্ষে তালা কলারোয়ার মানুষের প্রিয় মুখ।তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব  গোলাম হোসেন এলাকার সমাজসেবক হিসেবে বেশ সুপরিচিত ছিলেন। এড. মোহাম্মদ হোসেন  বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবি পরিষদের সম্মেলন প্রস্তুতিকমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য এবং ঢাকাস্থ সাতক্ষীরা আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি ও সভাপতি ঢাকাস্থ তালা উপজেলা সমিতির। সাতক্ষীরা তালা কলারোয়া ১ আসনের ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে লড়ার ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। নানাভাবে প্রচার- প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এ ছাত্রলীগনেতা। বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার সাথে তার ছবি দিয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট চেয়ে পোষ্টার ব্যানার ছেয়েগেছে তালা কলারোয়ার প্রতিটি ইউনিয়ন-ওয়ার্ডে, গ্রাম পাড়া-মহল্লায়। বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বিশাল গাড়ীবহর নিয়ে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনা সরকারকে বঙ্গবন্ধুর নৌকায় ভোট দেওয়ার আহবান জানাচ্ছেন। স্কুল জীবনে সহ পাঠীরা বর্তমানে তালা কলারোয়ারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানে কর্মরত রয়েছে তারাও এড. মোহাম্মাদ হোসেনর পক্ষে বিভিন্ন ভাবে প্রচার-প্রচারনা চালাচ্ছে। তিনি সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের সাথে মতবিনিময়সভা করে নৌকার পক্ষে জনমত গড়ে তুলছেন। আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা এক আসনের এমপি নির্বাচিত হলে কিভাবে তালা-কলারোয়ার উন্নয়নে কাজ করবেন-সে সব পরিকল্পনা নিয়ে গত মঙ্গলবার তার কার্যালয় একান্ত কথা বলেছেন এভিএএসনিউজ এর সঙ্গে । শুরুতেই এক প্রশ্নের জবাবে এড. মোহাম্মাদ হোসেন বলেন, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় দেশবাসীকে অনেক ভালভাল চমক উপহার দিয়েছেন। দক্ষিন বঙ্গের মানুষের উন্নয়নে পদ্মাসেতুর মতো বৃহত একটি সেতু নির্মান কাজ শুরু করে এ অঞ্চলের মানুষের ব্যবসা-বাণিজ্যকে আর ত্বরাণ্বিত করতে এক মহৎ কাজ করে চলেছেন। তিনি বলেন আমি ছাত্র জীবনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দিয়েছি। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবি পরিষদের সম্মেলন প্রস্তুতিকমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য হিসেবে একটি গুরু দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছি। ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে দল ও জনগনের সেবা করার অভিঙ্গতা আমার আছে। আমার মনে হয় এর মাধ্যমে দলের জন্য ভাল কাজ করেছি। সেই জন্য প্রধানমন্ত্রী আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে আমাকে সাতক্ষীরা ১ আসনের মনোনয়ন দিয়ে জনগনের সেবা করার গুরু দায়িত্ব দেবেন।এড. মোহাম্মাদ হোসেন বলেন তালা-কলারোয়া রাস্তাঘাট উন্নয়ন থেকে অনেক পিছিয়ে আছে। আসনের ননএমপিও ভুক্ত স্কুল, কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও করার সর্বাত্মক উদ্যোগ গ্রহন করব। জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে চেয়ে আনার মতো এমপি না থাকায় তালা-কলারোয়ার জনগন তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছে। আগামী সংসদে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়ে জনগনের ভোটে নির্বাচিত হলে এসব সমস্যার সমাধান করব। তালার জলবদ্ধতার বিষয়ে কথা হলে তিনি জানান এই এলাকার জলাবদ্ধতার একমাত্র কারণ কপোতাক্ষ সঠিকভাবে খনন না করা । সরকারের বাজেট ঠিকই আসে কিন্তু সঠিকভাবে কাজ করা হয় না । তিনি বলেন নির্বাচিত হলে অবশ্যই ঝুড়ি কোদালের মাধ্যমে কপোতাক্ষ খনন করে এ এলাকার মানুষের দূর্ভোগ কমাতে সর্বাত্মক চেষ্টা করব।

Please follow and like us:
Facebook Comments