পাকিস্তানমুখী তিনটি নদীর প্রবাহ আটকে দিয়েছে ভারত

এক্সপ্রেস ট্রিবিউন : ভারতের বিরুদ্ধে এবার পানিসন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ উঠেছে পাকিস্তানে। দেশটির মধ্য দিয়ে প্রবাহিত তিনটি নদীর পানি আটকে দিয়ে ভারত এই সন্ত্রাস চালাচ্ছে বলে স্থানীয় পত্রপত্রিকা অভিযোগ করেছে। নদী তিনটি হলো- সুতলেজ, বিয়াস ও রবি। এছাড়া চেনাব নদীর পাওনা ৫০,০০০ কিউসেক পানিও ব্যাপকভাবে কমিয়ে দিয়েছে বলে খবরে জানা গেছে। ভারত নদীগুলোর গতিপথ আটকে দেয়ায় সেগুলোর ৯০টি খালের একটিতেও পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে গেছে। পাকিস্তানের রাজনৈতিক দলগুলো যখন প্রতিদ্বন্দ্বীকে ধ্বংস করার কাজে ব্যস্ত সেই সুযোগে ভারত ১৯৬০ সালের সিন্ধু পানি চুক্তি (আইডব্লিউটি) লঙ্ঘন করে নদীগুলোর প্রবাহ আটকে দেয় বলে সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়।

চুক্তি অনুযায়ী পাকিস্তানকে চেনাব নদীর ৫০,০০০ কিউসেক পানি দেয়ার কথা ভারতের। বর্তমানে এই নদীতে মাত্র ৫৪৬১ কিউসেক পানি ছাড়া হচ্ছে।

সুতলেজ, বিয়াস ও রবি নদীতে ভারত বহুসংখ্যক বাঁধ নির্মাণ করেছে। ফলে এসব নদী থেকে বহু জলজপ্রাণী বিলুপ্ত হয়ে গেছে। অন্যদিকে চেনাব নদীতে মাত্র ৪১৮২ কিউসেক পানি ছাড়া হচ্ছে। অথচ নদীর স্বাভাবিক গতি বজায় রাখার জন্য অন্তত ১৮০০০ কিউসেক পানি প্রয়োজন। ভারত পানি বন্ধ করে দেয়ায় পাকিস্তানে কৃষিপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি ঘটবে বলে বিশ্লেষকরা সতর্ক করে দিয়েছেন। কৃষকরা সেচের কাজে এখন টিউবওয়েল ব্যবহার করছে।

সিন্ধু পানি চুক্তি অনুযায়ী, তিনটি নদী: জিলম, চেনাব ও সিন্ধু’র পানিতে পাকিস্তান অবাধ প্রবেশের সুযোগ পাবে। অন্যদিকে, পূর্বাঞ্চলের তিনটি নদী সুতলেজ, বিয়াজ ও বিয়াস-এ ভারতকে অবাধ প্রবেশের সুযোগ দেয়া হয়েছে। তবে, সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের প্রধামন্ত্রী নরেন্দ্র্র মোদী বিভিন্ন উপলক্ষে সিন্ধু পানি চুক্তি বাতিলের হুমকি দিয়েছেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments