রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে অযোগ্য ব্যক্তিকে নিয়োগ বাণিজ্যের মাধ্যমে নিয়োগের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও মানব বন্ধন

ফিরোজ হোসেন : সাতক্ষীরার রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে অযোগ্য ব্যক্তিকে নিয়োগ বাণিজ্যের মাধ্যমে নিয়োগের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও মানব বন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে অভিভাবক ও গ্রামবাসীরা। সোমবার সকালে রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তায় পৌরসভার ০৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শেখ শফিক উদ দৌলা সাগর এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. আব্দুল মান্নান। মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন পৌর কাউন্সিলর ফারহা দিবা খান সাথি, একরামুল কবির খান, মো. হাফিজুর রহমান খান বিটু, নাসির খান, লিয়াকত হোসেন, গিয়াস উদ্দিন, মঈনুল আরেফিন, মেহেদী হাসান ও আব্দুল কাদের উজ্জল প্রমুখ। এসময় বক্তারা বলেন, রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ প্রতিষ্ঠানটি ২১ শে পদক প্রাপ্ত জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম.আর খানের একটি এহিত্যবাহী প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানটি রক্ষা করা গুরু দায়িত্ব অভিভাবকবৃন্দ ও এলাকাবাসীর। তাই ওই নিয়োগ বাতিল করে পুনরায় নিয়োগ দেওয়াসহ দোষীদের শাস্তির দাবী জানিয়েছেন । এ ব্যাপারে রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সদ্য নিয়োগ প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুলতানা নার্গিস ডেইজি বলেন, সংবাদ সম্মেলনে এবং মানববন্ধনে যে অভিযোগ করেছেন তা সম্পুর্ন্ন মিথ্যা। আমি এই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলাম। প্রধান শিক্ষক পদে অংশ নিয়ে বিধি মোতাবেক স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি নিজে নিয়োগ বোর্ডের সকলের সামনে ফলাফল ঘোষণা দেন। সভাপতি প্রভাবিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ করছেন। এব্যাপারে নিয়োগ বোর্ডের ডিজি প্রতিনিধি এস.এম আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, শতভাগ বিধি মোতাবেক নিয়োগ সম্পর্ন্ন করা হয়েছে। স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও নিয়োগ বোর্ডের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে ও স্বাক্ষরে ফলাফল ঘোষণা করেন স্কুল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি একরামুল কবির খান। লিখিত ৩৫ নম্বরের পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকারীকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষভাবে নিয়োগ সম্পর্ন্ন করা হয়েছে। নিয়োগের ব্যাপারে এমপির নাম ব্যবহার করা হয়েছে এটা আমাকে হেয় প্রতিপর্ন্ন করা হয়েছে। বিষয়টিা সম্পুর্ন্ন মিথ্যা।

Please follow and like us:
Facebook Comments