হরতাল শেষ: সিপিবি কার্যালয়ে পুলিশের তল্লাশি

ক্রাইমবার্তা রিপোর্ট:বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম দলগুলোর ডাকা আধাবেলা হরতাল শেষ হয়েছে  হরতালে  রাজধানীতে সিপিবি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম জানান, সকালে পুলিশ সিপিবি কার্যালয় ঘিরে ভেতরে তল্লাশি চালায়। পরে হরতালের সমর্থনে কোন মিছিল বের না করার নির্দেশ দিয়ে ১৩ জনকে আটক করে নিয়ে গেলেও পরে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। পাশাপাশি সিপিবি’র অফিসে প্রবেশ পথেও চার রাউন্ড কাঁদানে গ্যাস ছোড়া হয় বলে তিনি অভিযোগ করেন। তিনি জানান রাজধানীর বাইরে খুলনা,কুমিল্লাসহ বেশ কয়েকটি স্থানে হরতালে বাধা দিয়েছে পুলিশ।
বিদ্যুতের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবি ও চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দামবৃদ্ধির প্রতিবাদে সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ হরতাল । গত মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশে থেকে জেএসডি এবং নাগরিক ঐক্যের পক্ষ থেকে হরতালের সংহতি জানান হয়। অপরদিকে গতকাল বুধবার বাংলাদেশ ন্যাপ ও ইসলামিক পার্টির পক্ষ থেকে জানানো হয় তাদের দল হরতালে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে। এছাড়া বিএনপির পক্ষ থেকে হরতালের সমর্থন দেয়া হয়।
এদিকে হরতালের সমর্থণে মিছিল করেছে সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা। পল্টন থেকে মিছিলটি দৈনিক বাংলা, মতিঝিল, শাপলা চত্বর গুলিস্থান প্রেসক্লাব হয়ে পল্টনে এসে সভায় মিলিত হয়।
সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার সমন্বয়ক সাইফুল হক, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদ মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী’র) কেন্দ্রীয় নেতা মানস নন্দী, গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক ফিরোজ আহমেদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক প্রমুখ মিছিলে অংশ নেন।
এদিকে হরতালের সমর্থনে ভোরে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে বেশ কয়েকবার মিছিল করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু পুলিশ একধরণের বিকট শব্দ ব্যবহার করে হরতালকারীদের সরিয়ে দেয়। সকাল নটা থেকে শাহবাগ গোল চক্করে হরতালের সমর্থণে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের ব্যনারে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে লিটন নন্দী,গোলাম মোস্তফা, ইমরান হাবিব প্রিন্স, ইকবাল বারী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments