বিএনপি নেতা দুলু-ছবিকে নাটোরে আসতে না দিতেই আওয়ামী লীগের মিথ্যাচার

নাটোর প্রতিনিধি
নাটোরে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট এম রুহুূল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর বাড়িতে ছাত্রলীগের হামলা, গুলি বর্ষণ ও তার স্ত্রী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাবিনা ইয়াসমিন ছবিকে সিংড়ায় দলীয় সভায় যেতে বাধা দেয়ার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করছে নাটোর জেলা বিএনপি। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, গত ৩ ডিসেম্বর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম মাসুমের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫টি মোটরসাইকেলে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মী দুলুর বাড়ির সামনে এসে গুলি ও ইট পাটকেল ছুঁড়ে হামলা চালায়। ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রুবেল তার নিজের কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্রের গুলিতেই আহত হয়েছেন। এসময় ছাত্রলীগের করা গুলিতে পথচারী আনসার-ভিডিপির সদস্য সোহেল রানাও আহত হন। বিএনপি নেতারা বলেন, ক্ষমতায় থাকার সময় সাবেক মন্ত্রী দুলু নাটোরের কানাইখালীতে সকল দলের নেতাকে এক মঞ্চে নিয়ে নাটোরকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করার আন্দোলন শুরু করেছিলেন। তার সময়ে আওয়ামী লীগের কোন নেতাকে নাটোর শহর ছাড়তে হয়নি এমনকি কোন নেতার বাড়িও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেনি অথচ তিনবারের নির্বাচিত সাবেক এমপি এবং মন্ত্রী দুলু ও নবম সংসদে এক লাখ ১৮ হাজার ভোট পেয়ে সামান্য ব্যবধানে পরাজিত তার স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ছবিকে নাটোরে তাদের নিজের বাড়িতেই আসতে দিচ্ছেন না বিনা ভোটে নির্বাচিত আওয়ামী লীগের এমপি মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুল। তারা নিজেরা নানা অপকর্ম করে পরিকল্পিতভাবে বিএনপির ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছেন। এর আগেও যুবলীগ কর্মী ফারুক, পলাশ ও রাসুকে তারা নিজেরাই হত্যা করেছে তা নাটোরবাসী সকলেই জানেন। বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ওই ঘটনার পর পরই নাটোর প্রেস ক্লাবে ছাত্রলীগের ডাকা সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম মাসুম নিজেই বলেছেন যে, নাটোর জেলা ছাত্রলীগ নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা সরকারী কলেজের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করতে পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীর একটি মিছিল নিয়ে শহর থেকে কলেজে যাওয়ার পথে আলাইপুরে বেনুবেকারীর সামনে ওঁৎ পেতে থাকা যুবদল-ছাত্রদল নেতাকর্মীরা সাবিনা ইয়াসমিন ছবির নির্দেশে তাদের ওপর বৃষ্টির মতো মূহুর্মূহু গুলি করে। এতে একজন ছাত্রলীগ নেতাসহ দুইজন আহত হয়। তার ওই কথাতেই প্রমাণ করে যে ঘটনাটি একেবারেই মিথ্য কারণ পাঁচশ’ ছাত্রের মিছিলে বৃষ্টির মতো গুলিতে মাত্র দুইজন আহত হওযার কথা না এটা যে কেউ বুঝতে পারেন। নাটোর জেলা বিএনপি অফিসে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক গোলাম সারোয়ার। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাচ্চু, সাবেক এমপি ডাঃ সুুফিয়া হক, বড়াইগ্রাম উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও নাটোর জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ আব্দুল কাদের, নলডাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সভাপতি আতিকুর রহমান তালুকদার এং সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শাখাওয়াত হোসেন, নাটোর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র শেখ এমদাদুল হক আল মামুন, নলডাঙ্গা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহুয়া পারভীন লিপি, সিংড়া থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট মুজিবর রহমান মন্টু, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আজগর আলী, নলডাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সিংড়া পৌর বিএনপির সভাপতি দাউদার মাহমুদ ও নাটোর সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোর্শেদা খাতুন রূপালী।

 

Please follow and like us:
Facebook Comments