মেয়র পদে লড়াই হবে ত্রিমুখী

রংপুর অফিস : আগামী কাল অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও মুলত: লড়াই হবে লাঙ্গল, নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যে। এদিকে মেয়র পদে বিজয়ী প্রার্থীও পরাজিত প্রার্থীর ভোটের বিশাল ব্যবধান হওয়ারও ধারণা দিয়েছেন নির্বাচন বিশ্লেষকরা। রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে প্রকাশ, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৭ জন। এদের মধ্যে জাতীয় পার্টি মনোনিত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা লাঙ্গল, আওয়ামী লীগ মনোনিত সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টু নৌকা, বিএনপি মনোনিত কাওছার জামান বাবলা ধানের শীষ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনিত এটিএম গোলাম মোস্তফা হাতপাখা, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি মনোনিত সেলিম আখতার আম, বাসদ মনোনিত আব্দুল কুদ্দুস মই এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ হাতি প্রতিক নিয়ে লড়ছেন। তবে লাঙ্গল নৌকা আর ধানের শীষের মধ্যেই লড়াই হবে বলে মনে করছেন নগরবাসী।  সরেজমিনে দেখা গেছে ভোটযুদ্ধের নির্বাচন কমিশনের দেয়া বেঁধে দেয়া সময়সূচির মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত লাঙ্গল প্রতীকের মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা এবং তার সাথে জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান জিএম কাদেরসহ মূল, সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা বিচ্ছিন্নভাবে পুরো নগরীতে প্রচারণা চালিয়েছেন। রাতে মোস্তফা সিটি বাজারের সামনে বিশাল পথ সভায় প্রচারণা চালান। এদিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টু এবং তার পক্ষে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেনসহ মুল, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা পুরো নগরী চষে বেরিয়েছেন প্রচারণার কাজে। অন্যদিকে সব কেন্দ্রীয় নেতা চলে গেলেও বিএনপি প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক মহানগর সভাপতি মোজাফফর হোসেন,  সদস্য সচিব ও সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম মিজুসহ বিপুল পরিমাণ নেতাকর্মী নগরীর বিভিন্ন প্রান্তে ধানের শীষের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেন। আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে এই ভোট। এখানে মেয়র পদে ৭ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

২০ডিসেম্বর২০১৭,বুধবার:ক্রাইমর্বাতাডটকম/প্রতিনিধি/আসাবি

Please follow and like us:
Facebook Comments