রংপুর সিটিতে ভোটগ্রহণ শেষ : গণনা চলছে, বিপুল ভোটে এগিয়ে লাঙ্গল

১৯৩ কেন্দ্রের মধ্যে এ পর্যন্ত প্রাপ্ত বেসরকারিভাবে ফলাফলে ১৩৪ কেন্দ্রে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী  মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা এগিয়ে রয়েছেন।
তিনি লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ১ লাখ ১৯৯১৯ ভোট, আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু নৌকায় পেয়েছেন ৪৫ হাজার ৬৩৭ ভোট এবং বিএনপি প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা ধানের শীষে পেয়েছেন ২৫ হাজার ২২৬ ভোট।

———0————

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এখন পর্যন্ত জাতীয় পার্টির লাঙ্গল এগিয়ে আছে। ১৯৩টি কেন্দ্রের মধ্যে এ পর্যন্ত ১১৯ টি কেন্দ্রের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। ফলাফলে জাতীয় পার্টির (লাঙ্গল) প্রার্থী মোস্তাফিজুর রাহমান ১ লক্ষ ২৩ হাজার ৩৫ ভোট পেয়েছেন।

এর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু ৩৯ হাজার ৫০২ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া বিএনপি প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা পেয়েছেন ২০ হাজার ১৮০ ভোট।

রসিকের ১৯৩টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শেষে এখনো চলছে ভোট গণনা। মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে সাত প্রার্থীর সঙ্গে ৩৩ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ২৭৬ জন।

রসিকের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৫৬ এবং নারী ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন।

রংপুর: বহুল প্রত্যাশিত রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পাল্টাপাল্টি অভিযোগের পর নানারকম শঙ্কা আর ভয়ের মধ্যে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় শেষ হয়। এখন চলছে ফলাফল ঘোষণা।

১৯৩ কেন্দ্রের মধ্যে এ পর্যন্ত প্রাপ্ত বেসরকারিভাবে ফলাফলে ৩৭ কেন্দ্রে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী  মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা এগিয়ে রয়েছেন।

তিনি লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ২৭ হাজার ৩৯ ভোট, আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু নৌকায় পেয়েছেন ৯ হাজার ৪৬৯ ভোট এবং বিএনপি প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা ধানের শীষে পেয়েছেন ২ হাজার ৯১৪ ভোট।

————0————

রংপুর সিটি কর্পোরেশনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে।
নির্বাচন কমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, এই সিটির ১৯৩টি ভোটকেন্দ্রে আজ সকাল ৮টা থেকে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। ভোটগ্রহণ শেষে এখন কেন্দ্রগুলোতে ভোট গণনা চলছে।
শীতকে উপেক্ষা করে সকাল থেকেই কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন।
এ নির্বাচনে ১৯৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ১০৮টিকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে নির্বাচন কমিশন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে ২০ নম্বর ওয়ার্ডের সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র এবং ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। রোকেয়া কলেজ কেন্দ্র পরীক্ষামূলক ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হয়।
এই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৭ জন প্রার্থী। এরা হলেন- আওয়ামী লীগের সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু (নৌকা), জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা (লাঙ্গল), বিএনপির কাওসার জামান বাবলা (ধানের শীষ), বাসদের আবদুল কুদ্দুস (মই), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের এ টি এম গোলাম মোস্তফা বাবু (হাতপাখা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টির সেলিম আখতার (আম) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (হাতি)। এখানে ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
এই সিটিতে ভোটার ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৫৬ জন, নারী ভোটার ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১৯৩টি, ভোটকক্ষ ১১৭৮টি।

২১ডিসেম্বর২০১৭,বৃহস্পতিবার:ক্রাইমর্বাতাডটকম/প্রতিনিধি/আসাবি

Facebook Comments
Please follow and like us: