শ্যামনগরের এক যুবকের নিকট থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

সৌদি আরবে চাকুরী দেয়ার নাম করে শ্যামনগরের এক যুবকের থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।এঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ যুবক মনিরুজ্জামান মুন্না বাদী হয়ে প্রতারনা করে টাকা নেয়ার অভিযোগে শ্যামনগর উত্তর আটুলিয়া গ্রামের সুরাত মোল্যার পুত্র সিরাজুল ও রফিকুল ইসলাম ও রফিকুলেরর স্ত্রী নুরুন্নাহার খাতুনের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা আদালতে গত ১৮/৫/১৭ তারিখে ৩১ এর খ ও ৩৪ ধারা মোতাবেক এক মামলা দায়ের করেন।
মামলার বিবরন সুত্রে জানা গেছে, ৫০ হাজার টাকা করে প্রতিমাসে বেতন দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বাদী মুন্নার নিকট হইতে বিবাদীরা নগদ ৬,৭০.০০০ হাজার টাকা গ্রহন করে। টাকা নেয়ার পর মুন্নাকে সৌদি আরবে নিয়ে যায়।কিন্ত যে চাকুরী দেয়ার কথা ছিল সেটি না দিয়ে তাকে ওই দেশে একটি ঘরে তালা বদ্ধ করে রাখে। পরে কোন রকমে সৌদি আরব থেকে মুন্না কোন রকমে জীবন নিয়ে ফিরে আসে। বাড়ীতে এসে মুন্না তার দেয়া টাকা ফেরত চায়।কিন্ত বিবাদীরা টাকা ফেরত না দিয়ে তাল বাহনা করতে থাকে। এক পর্য্যায় টাকা না দেয়ার পরিকল্পনায় মনিরুজ্জামান মুন্নার বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ভাবে মিথ্যা ধর্ষন মামলা দেয়।এবিষয় মনিরুজ্জামান মুন্না বলেন, মিথ্যা মামলাটি পুলিশ তদন্ত করে পরবর্তীতে মামলাটি ফাইনাল দেয় পুলিশ। এদিকে মুন্নার দায়েরকৃত আদালতের মামলাটিতে সমন হলে আসামীরা মিমাংসার সর্তে জামিন নেয়।জামিন নেয়ার পরে বর্তমানে আসামীরা টাকা আত্বসাতের লক্ষে নানা প্রকার হয়রানী করে চলেছে।ক্ষতিগ্রস্থ মনিরুজ্জামান মুন্না তার নার্য্য টাকা পেতে পুলিশ সুপার সহ প্রসাশনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments