বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিযে প্রতিদিন কয়েক হাজার বিদেশী মুসল্লি বাংলাদেশে আসতে শুরু হয়েছে

মসিয়াররহমান কাজল:বেনাপোল প্রতিনিধি
বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিযে প্রতিদিন কয়েক হাজার বিদেশী মুসল্লি বাংলাদেশে আসতে শুরু হয়েছে।
টঙ্গির তুরাগ নদীর তীরে শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) থেকে শুরু হতে যাওয়া ৬৬তম বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে  বিদেশি মুসল্লিরা আসছেন বাংলাদেশে। গত এক সপ্তাহে এই সংখ্যা ২ হাজারেরও বেশি বলে জানিয়েছেন ঢাকার তাবলীগ জামায়াতের কর্মকর্তা আলহাজ্ব কামাল হোসেন।
বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলামও জানিয়েছেন, আখেরি মোনাজাতের আগের দিন পর্যন্ত আরও বিদেশি মেহমান আসবেন বাংলাদেশে।
পুলিশ জানায়, যেসব দেশ থেকে বিদেশি মুসল্লিরা আসছেন সেসব দেশের তালিকায় রয়েছে ইন্দোনেশিয়া, মালেশিয়া, আফ্রিকা, তুর্কমেনিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ফিলিপাইন, ভারত, সৌদি আরব ও কম্বোডিয়া।
বিদেশী মেহমানদের অভ্যর্থনা জানানো, থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা ও বাস যোগে ঢাকায় পাঠানোসহ সব কাজ দ্রুত করার জন্য ঢাকার কাকরাইল মসজিদ থেকে আসা ৩৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছেন বেনাপোল চেকপোস্টে । তাদের সঙ্গে কাজ করছেন বেনাপোলে চেকপোস্টে র জামিয়া আরাবিয়া বাগে জান্নাত কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও এতিমখানার নেতারা। বিশ্ব ইজতেমায় আগত বিদেশি মেহমানসহ মুসল্লিদের থাকা-খাওয়ার জন্য এ মাদ্রাসায় বিশেষ ব্যবস্থাও রয়েছে।
এদিকে, পরিবহন স্বল্পতার কারণে বিদেশ থেকে আসা মুসল্লিরা দুর্ভোগের মধ্যে পড়ছেন। কুয়াশার কারণে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পরিবহন না আসায় এই সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করেছে। এছাড়া, ইজমেতায় যোগ দিতে আসা বিদেশি মেহমানরা ৫০০ টাকার ভ্রমণকর নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। তারা বলছেন, ইসলামি দাওয়াতের কাজে তারা বাংলাদেশে আসছেন। তাই সরকার এই কর তাদের জন্য মওকুফ করতে পারত।
ইউসুফ আলী নামে এক ভারতীয় নাগরিক জানান, ভারতীয় পুলিশ তাদেও ৩/৪ ঘন্টা ধরে নানাভাবে জিঙ্গাসাবাদ করে অহেতেুক দেরী করিয়েছে।
বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা ভারতীয় নাগরিক মো. রিয়াসাদ হোসাইন জানান,‘আমরা শত শত বিদেশি মুসল্লি কেবল ধর্মীয় কাজে বিশ্বএজতেমায় যোগ দিতে বাংলাদেশে এসেছি। সরকারের উচিত ছিল ইজতেমায় আসা বিদেশি মেহমানদের ভ্রমণকর মওকুফ করে দেওয়া। তাহলে বাংলাদেশ সরকারের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হতো।’
বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট পুলিশ ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান ‘বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা বিদেশি মেহমানদের দ্রুততার সঙ্গে পাসপোর্টের কাজ সম্পন্ন করতে সকাল সন্থ্যা কাজ করে যাচ্ছি।এ জন্য ইমিগ্রেশনে অতিরিক্ত অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিদেশি মেহমানদের সেবা করতে পেরে আমরাও খুন খুশি।১১জানুয়ারী,২০১৮বৃহস্পতিবার::ক্রাইমর্বাতা.কম/প্রতিনিধি/আসাবি

Facebook Comments
Please follow and like us: