আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ: বইমেলা স্থগিত

ক্রাইমবার্তা রিপোট: বগুড়া : আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের একুশে বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের অতিথি করাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে অনুষ্ঠানের চেয়ার, টেবিল, মঞ্চ, বইয়ের স্টল ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। এসময় ছাত্রলীগের একপক্ষ চেয়ার ভাঙ্গার পর কলেজের পুকুরে ছুঁড়ে ফেলে দেয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সংঘর্ষের পর থেকে কলেজের স্টাফ কাউন্সিলের বৈঠক থেকে বইমেলা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানায়, ভাষার মাসের শুরুতে ভাষা শহীদদের স্মরণ করে গত দুই তিন বছর ধরে ২১ দিনব্যাপী বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে বইমেলার আয়োজন করা হয়ে থাকে। কলেজের ক্যাম্পাসের এক অংশে বইমেলার স্টল, খাবারের দোকানসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনও করা হয়। এবছর কলেজের বইমেলার প্রধান অতিথি করা হয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মমতাজ উদ্দিনকে।
আজ বিকেল তিনটায় বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মোহনের নাম অতিথি তালিকায় না থাকায় অনুষ্ঠান শুরুর আগে অতিথি করা আর না করা নিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়।

কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক বুলবুল এবং ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ গ্রুপের সাথে তর্ক বিতর্কে জড়িয়ে যায়। এর এক পর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষ চলাকালে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। ইটপাটকেল ও লাঠিসোটা নিয়ে উভয় গ্রুপে সংঘর্ষ চলাকালে ইটপাটকেল ও লাঠির আঘাতে কমপক্ষে ৬ নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের মধ্যে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক বুললু (২৩) ও কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মিথেলস প্রসাদকে (২২) বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে পুলিশ। লাঠিহাতে থাকা কিছু বহিরাগত যুবকদের তাড়া করে বের করে দিয়ে পুলিশ ক্যাম্পাসের নিয়ন্ত্রণ নেয়। সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতা মিথেলস প্রসাদ, আব্দুস সবুর, আরিফুজ্জামান মৃদুল, মুকুল ইসলামসহ ৬ জন আহত হয়েছে।

বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হক বুলবুল জানান, তিনিসহ ছাত্রলীগ নেতা মিথেলস প্রসাদ, আব্দুস সবুর, আরিফুজ্জামান মৃদুল, আহত হয়েছে। তিনি বলেন, তাদের উপর অন্যায়ভাবে অতর্কিত হামলা চালিয়ে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে।
বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ জানান, কলেজ শাখা ছাত্রলীগের মধ্যে দ্বন্দ্ব নেই। কিন্তু কি কারণে এ ঘটনা ঘটলো তা তিনি বলতে পারেন না। তিনি দাবী করেন মুকুল ইসলাম নামের জেলা ছাত্রলীগের এক নেতাও আহত হয়েছেন। কলেজ ছাত্রলীগের অন্যান্য নেবগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর শাহজাহান আলী জানান, কলেজের স্টাফ কাউন্সিলের বৈঠক থেকে বইমেলা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

Facebook Comments
Please follow and like us: