যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকায় ‘আইএস-বাংলাদেশ’

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোর্ট:    বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠন আইএস-বাংলাদেশকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন থেকে সংগঠনটি সন্ত্রাসীদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকবে।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট এই ঘোষণা দেয়।

বিভিন্ন দেশের দুই ব্যক্তি ও সাত সংগঠনের বিরুদ্ধেও সন্ত্রাসের অভিযোগ তোলে যুক্তরাষ্ট্র। এসব ব্যক্তি ও সংগঠনকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের তালিকায় যুক্ত করা হয়।

ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট-এর ওয়েবসাইটে নাইজেরিয়ার আবু মুসাব আল বার্নাবি ও সোমালিয়ার মাহাদ মোয়ালিমকে সন্ত্রাসী আখ্যা দেয়া হয়। এছাড়া বাংলাদেশ, মিসর, ফিলিপাইন, সোমালিয়া, নাইজেরিয়া ও তিউনিসিয়ার সাতটি সংগঠনকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়। সংগঠনগুলো হলো: আইএস-বাংলাদেশ, আইএস-মিসর, আইএস-ফিলিপাইন, আইএস-সোমালিয়া, আইএস-পশ্চিম আফ্রিকা, জান্দ আল খাইলাফাহ ও ফিলিপাইন ভিত্তিক মাওতে গ্রুপ।

এদিকে, আলাদা এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা আইএস-এর ৪০ জন নেতার নাম চূড়ান্ত করেছে। এদের ওপর মার্কিন অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করা হবে। অর্থাৎ তারা যুক্তরাষ্ট্র বা এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অর্থনৈতিক লেনদেন করতে পারবে না।

বিবৃতিতে বলা হয়, এই নিষেধাজ্ঞা আইএসকে পরাজিত করার বৃহৎ পরিকল্পনার অংশ। বিশ্বের প্রায় ৭৫ দেশের সহায়তায় যুক্তরাষ্ট্র এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বেশ অগ্রসর হয়েছে। এতে আইএসর এর ‘নিরাপদ স্বর্গ’ আজ বিপন্ন হয়ে পড়েছে। তারা বিদেশী সন্ত্রাসীদেরকে নিজেদের দলে ভেড়াতে পারছে না। পাশাপাশি তাদের অর্থনৈতিক ভিত্তিও দুর্বল হয়ে পড়েছে।

সিরিয়া ও ইরাকের প্রায় সব ঘাঁটি থেকেই আইএসকে উৎখাত করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও ওয়াশিংটন গোষ্ঠীটিকে নিজেদের জন্য হুমকি বলে মনে করে।

http://bn.southasianmonitor.com
Please follow and like us:
Facebook Comments