নাটোরে যুব মহিলা লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত

নাটোর সংবাদদাতা
নাটোরের লালপুরে যুব মহিলা লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার লালপুর উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিলের উদ্বোধক যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় লালপুর-বাগাতিপাড়ার প্রতিটি গ্রাম এখন বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত। ফলে এ এলাকার গ্রামে গ্রামে এখন ইন্টারনেট সংযোগ সহ ডিজিটাল সুযোগ-সুবিধা তৈরি হয়েছে। শুধু লালপুর নয় এমন ভাবে দেশের প্রতিটি গ্রামই এখন ডিজিটাল গ্রামে পরিণত হয়েছে। এজন্য এই এলাকার মা-বোনদের উচিৎ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে ত্বরান্বিত করা। লালপুর উপজেলা যুব মহিলা লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জেসমিন আরার সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস বলেন, সমাজের অর্ধেকটাই নারী তাই তাদেও বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়, নারীদেও সমান তালে এগিযে নিতে বর্তমান সরকার সব সময় কাজ করে যাচ্ছে। প্রধান বক্তা হিসেবে লালপুর-বাগাতিপাড়া আসনের সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিএনপির আমালে লালপুর-বাগাতিপাড়ায় আওয়ামী লীগের মিছিল-মিটিং করার মতো কোন লোক ছিলনা, হাঁটি হাঁটি পা পা করে এখন প্রতিটি ইউনিয়নেই জনগনের ভোটেই আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। তিনি বলেন বর্তমান সরকারের সময়ে এই এলাকায় যে উন্নয়ন হয়েছে তা আগে কোন সরকার্রে আমলেই হয়নি। লালপুরের অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রায় বিশ হাজার বেকার যুবক ও যুব মহিলার কর্মসংস্থান হবে। এছাড়া সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও নাটোর জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফু, সাধারন সম্পাদক ইসাহাক আলী, নাটোর জেলা মহিলা যুব লীগের সভাপতি আঞ্জুমান আরা পপি, সাধারন সম্পাদক পারুল আকতার ও রাজশাহী জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি নারগিস সুলতানা। সম্মেলনের ২য় অধিবেশনে কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল জান্নাতুল ফেরদৌস কেয়াকে সভাপতি ও জহুরানা আক্তার জেরিনকে সাধারন সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির নাম ঘোষণা করেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments