শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধনকালে রুহুল হককে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা মেডিকেল-বাইপাস দিয়েছি, কাজ করেন আরও অনেক কিছু পাবেন

স্টাফরিপোটর:  জেলার দেবহাটা উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী ১৫টি উপজেলার শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই দেবহাটা উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেন।
সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহম্মদ ইফতেখার হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সফল স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আ. ফ. ম রুহুল হক এমপি, সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের সাংসদ মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাকির হোসেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু আহমেদ, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হাবিুবর রহমান, অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল গনি, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তহমিনা খাতুন, পিপি এড. ওসমান গনি, সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার রবিন্দ্র নাথ দাশ, পল্লী বিদ্যুত সমিতির সভাপতি সাইফুল্লাহ প্রমুখ।
সাবেক সফল স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ. ফ. ম রুহুল হক এমপি হওয়ার পর থেকে তার নেতৃত্বে জেলায় অভাবনীয় উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। আর দেবহাটা উপজেলা তাঁর নির্বাচনী এলাকার মানুষ শতভাগ বিদ্যুৎ পেয়েছে।
সাবেক সফল স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ. ফ. ম রুহুল হক এমপি ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, আপনি দেবহাটার মানুষের জন্য শতভাগ বিদ্যুতের ব্যবস্থা করে দিলেন। এর আগে আপনি এই এলাকার মানুষের জন্য মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল দিয়েছেন। কিডনি রোগীদের ডাইলোসিস করার জন্য ডাইলোসিস মেশিনসহ উন্নত মানের চিকিৎসার বিভিন্ন সরঞ্জাম দিয়েছেন। এতে করে এই অঞ্চলের মানুষ উন্নত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে। আপনার দেওয়া বাইপাস সড়কের কাজ প্রায় শেষের দিকে। আপনি আমাদের এলাকায় রেল লাইন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু তার কাজ এখন শুরু হয়নি।
তার জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আপনাকে স্বাস্থ্যামন্ত্রী বানিয়েছিলাম, আপনার এলাকায় মেডিকেল কলেজ করে দিয়েছি। বাইপাস সড়ক করে দিয়েছি। এলাকায় কাজ করে যান আরও অনেক কিছু পাবেন।
এরআগে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহম্মদ ইফতেখার হোসেন দেবহাটা উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন, দেহাটার পাশাপাশি সাতক্ষীরা সদর ও আশাশুনি উপজেলাকে চলতি বছরের জুন মাসের মধ্যে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আনা হবে।
দেবহাটার উপজেলার বিদ্যুতের সুবিধাভোগী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী মৌমিতা দাশ প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফরেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীকে পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে মৌমিতা বলেন, আগে হ্যারিকেনের আলোতে পড়াশুনা করতে হবে। গরমকালে হাতপাকার বাতাই ছিল একমাত্র ভরসা। এখন শতভাগ বিদ্যুতের ফলে বৈদ্যুতিক আলোয় পড়াশুনা করতে পারছি। ফ্যানের বাতাস পাচ্ছি। ইন্টারনেট সুবিধার মাধ্যমে লেখাপড়ার অনেক কিছু জানতে পারছি। ম্যাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে লেখা পড়া করতে পারছি। এটা শুধুমাত্র বিদ্যুতের কারণে। আপনার এই এলাকায় বিদ্যুৎ দিয়েছেন সে জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
প্রঙ্গত: দেবহাটা উপজেলায় ৯৩ কোটি টাকা ব্যায়ে ৬০৭ কিলোমিটার লাইন নির্মিত হয়েছে। এতে ৩২ হাজার ৬৮০টি মানুষ বিদ্যুতের সুফল পাচ্ছেন। দেবহাটা উপজেলায় ২০০৮ সাল পর্যন্ত ৩১ শতাংশ মানুষের কাছে বিদ্যুৎ পৌছেছিল বর্তমান সরকার শতভাগ বিদ্যুৎ দিয়েছে। ২০০৮ সালের আগে পর্যন্ত আশাশুনি উপজেলায় ২৬% মানুষের কাছে পৌছেছিল। বর্তমান সরকারের আমালে ৭৬% মানুষের কাছে বিদ্যুৎ পৌছে গেছে। কালিগঞ্জ উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে মাত্র ২৭% মানুষ বিদ্যুতের সুফল পেত বর্তমানে ৮৯ % মানুষ বিদ্যুতের সুফল পাচ্ছেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments