সাতক্ষীরা শহর এখন পুলিশের হাতের মুঠোয়: অপরাধীদের গতিবিধি সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছে ৪৭ পয়েন্টে ১৩৩ ক্যামেরা

সাখাওয়াত উল্যাহ: অপরাধীকে সনাক্ত করতে, শহরকে যানজটমুক্ত এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে সাতক্ষীরা শহরকে সম্পূর্ণ নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে। আর এজন্য সাতক্ষীরা শহরে বসানো হয়েছে ১৩৩টি সিসি টিভি ক্যামেরা। যা গত ৩১ মার্চ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাতক্ষীরা সফরে এসে উদ্বোধন করেছেন।
পুলিশ সুপার মোঃ সাজ্জাদুর রহমান জানান, সাতক্ষীরাবাসীকে নিরাপত্তা দিতে, অপরাধীকে সনাক্ত করতে এবং কোন যানবাহণে দূর্ঘটনা ঘটলে বা দূর্ঘটনা ঘটিয়ে শহরে প্রবেশ করলেই চলে আসবে আমাদের দৃষ্টির মধ্যে। আর কোন অপরাধী শহরে প্রবেশ করা থেকে শেষ পর্যন্ত সবকিছুই আমাদের নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। এজন্য সাতক্ষীরা শহরের ৪৭টি পয়েন্টে ৪৭ পোলে সর্বমোট ১৩৩টি সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। যা ‘সিসি টিভি সার্ভিলেন্স কন্ট্রোল রুম এন্ড অপারেশন’ কক্ষে ৩ জন অফিসার সার্বক্ষণিক নিয়ন্ত্রণ ও তদারকী করছেন। এই রুমে রয়েছে ফোন, মোবাইল, ওয়ারলেস ও অকিটকি। তিনি সাতক্ষীরার যেকোন সমস্যা পুলিশকে জানানোর জন্য সাতক্ষীরাবাসীকে আহবান জানান। পুলিশ সুপার আরো জানান, এখন থেকে অবৈধ ও বেআইনী সমাবেশ করা, গাছ কাটা, রাস্তা কাটা, জননিরাপত্তা বিঘœ করাসহ কোনরূপ বিশৃঙ্খলা করলে তাৎক্ষণিক এ্যাকশনে যাবে পুলিশ। সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপনের দ্বিতীয় পর্যায়ে ২২৫টি এবং ৩য় পর্যায়ে ৩০০টি সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে এবং পর্যায়ক্রমে প্রযুক্তির মাধ্যমে জেলার সবকটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে ক্যামেরা স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।
সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন সংক্রান্ত এক সাক্ষাৎকারে পুলিশ সুপার আরো  জানান, ক্যামেরা স্থাপনের ব্যাপারে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র জনবল দিয়ে, পোল বসানোর স্থান নির্ধারণসহ সার্বিক সহযোগিতা করেছেন। আমাদের এ পরিকল্পনার সুফল পেতে সাতক্ষীরাবাসীর সহযোগীতা প্রয়োজন। শহরে কোন বিলবোর্ড, সাইনবোর্ড স্থাপন করতে অবশ্যই ক্যামেরার প্রতিবন্ধিকতা করছে কি-না তা খেয়াল করতে হবে। অবৈধ, অনুনমোদিত বিলবোর্ড ও সাইনবোর্ড সরিয়ে ফেলার জন্য ইতিমধ্যে সাতক্ষীরা পৌরসভাকে চিঠি দেওয়া হয়েছে এবং ক্যামেরা এলাকায় আরো পর্যাপ্ত আলো বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আশাকরি এখন থেকে সিসি টিভি ক্যামেরার সুফল পাবে সাতক্ষীরাবাসী। কোনরূপ সমস্যা দেখা দিলে সাথে সাথে পুলিশ কন্ট্রোল রুমে জানানোর জন্য বলা হয়েছে।
সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপনের দায়িত্বে থাকা ঢাকাস্থ ‘দি ট্রেড ইম্পায়ার’ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর শামীম হাসনাইন জানান, তারা ঢাকার উত্তরায়, বরিশালসহ অনেক স্থানে সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ করেছেন। সাতক্ষীরাতে কাজ শেষ করতে পুলিশ সুপার যে আন্তরিকতা ও কাজের তদারকী করেছেন তা অতুলনীয়। এছাড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মারুফ হাসান, পৌর মেয়র তাছকিন আহমেদ চিশতী ও সার্ভেয়ারসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা সহযোগিতার কারনেই সুষ্টভাবে সাতক্ষীরাতে কাজ করতে পেরেছি। এ কাজে নিয়োজিত কর্মচারী ভোলা জেলার নুরুল আমিন জানান, তারা বিভিন্ন স্থরের ২৪জন ব্যক্তি এ ক্যামেরা স্থাপনের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।
পুলিশ সুপার কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখার ডিআইওয়ান ইন্সপেক্টর মোঃ আজম খান  জানান, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে সিসি টিভি ক্যামেরা বসানোর কাজ শুরু হয়। যা এখনও চলমান রয়েছে। প্রথম পর্যায়ে শহরের জেলা পরিষদ মোড়, আমতলা মোড়, কাটিয়ার জজ বাংলো, পুরাতন সাতক্ষীরা, পি.এন স্কুল মোড় ও তুফান কোম্পানীর মোড় মিলে ৪৭টি পয়েন্টে ১৩৩টি সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। যে কোন সংবাদের ভিত্তিতে বা ক্যামেরার ছবি দৃষ্টে ১০ সেকেন্ডের মধ্যে বার্তা পৌছাবে ঘটনাস্থলের নিকস্থ পুলিশের কাছে। সকল ওয়ারলেস সেটের সংবাদ শোনার পর ঘটনাস্থলে একাধীক পুলিশের টিমও পৌছে যাবে। প্রসংগত সিসি টিভিতে ধারণকৃত তথ্য ১৫দিন পর্যন্ত সংরক্ষিত থাকবে।
আজম খান আরো জানান, সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপনের মূললক্ষ্য হচ্ছে জেলাবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং দ্রুতগতিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। কোন অপরাধী অপরাধ করে পালাতে পারবে না। তাছাড়া জেলার সবত্র যখন সিসি টিভির আওতায় চলে আসবে তখন যেকোন দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলে যেমন পুলিশ পৌছাবে, তেমনি আমরাই ফায়ারসার্ভিস বা এ্যাম্বুলেন্সকে খবর দেব সাহায্য করতে। তিনি আরো বলেন, পুলিশ সুপার সাহেব যেভাবে কাজ করছেন তা অব্যাহত থাকলে আমাগী সংসদ নির্বাচনের পূর্বেই আমরা জেলার অন্যান্য স্থানে কাজ শেষ করতে পারবো। তিনি বলেন, পুলিশ সুপার দিনে ৩/৪বার এমনকি রাতে অফিস শেষে বাসায় যাওয়ার পূর্বে একবার কন্ট্রোলরুমে আসেন এবং খোজ খবর নেন। তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরা শহর এখন পুলিশের দৃষ্টির মধ্যে। আমরা জনগণের জান ও মালের যেমন নিরাপত্তা চাই তেমনি কেউ যাতে হয়রানী না হয় সে ব্যাপারেও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। জনগণের সুবিধার্থে যেকোন ব্যক্তি ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে যেকোন অভিযোগ করতে পারবে বা পুলিশকে যেকোন তথ্য দিতে পারবে। এজন্য E-mail: dsbsatkhira@gmail.com & Web site : www.spdsbsatkhira.com এবং কন্ট্রোলরুম মোবাইল নম্বর: ০১৭৩৯-৮৪০৯৫১ চালু রয়েছে। তিনি সাতক্ষীরাবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Please follow and like us:
Facebook Comments