পাটকেলঘাটায় সংখ্যালঘুদের জমি দখলের পায়তারা# মারপিট করে ঘর ভাংচুর

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি।
স্বামী কৃষ্ণপদ ঘোষ পাটকেলঘাটার সরুলিয়া মৌজায় ১৫৪ খতিয়ানে যে জমি রেখে গেছেন সেখানেই বসবাস করতেন তার স্ত্রী পুর্নিমা ঘোষ ও তাদের দুই মেয়ে তাপসী ঘোষ ও কালিদাসী ঘোষ। পুর্নিমা ঘোষের নামে এই জমি তাদের দিদিমা চুনিবালা ঘোষ দান করেছিলেন বহু আগে। মাতা পুর্নিমা মারা যাওয়ার পর থেকে এই জমি তারা পারিবারিকভাবে অনাত দুই বোন ভোগ দখল করে আসছেন। আর্থিক অনটনের কারণে এই জমির অনেকটাই বিক্রি হয়ে গেছে। অবশিষ্ট যে জমি আছে তাতে থাবা বসাতে চায় প্রতিবেশী বলাই ঘোষের ছেলে দীনেশ গোষ ও নগেন ঘোষের ছেলে কল্যান ঘোষ।
শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে তালা উপজেলার সরুলিয়া গ্রামের তাপসী ঘোষ ও কালিদাসী ঘোষ একথা বলেন। তারা আরও বলেন, আমাদের শেষ সম্বলটুকু ওরা কেড়ে নিতে চায়। আমাদের রক্ষা করুন।
সংবাদ সম্মেলনে তাপসী বলেন এ বিষয়ে দীনেশ ও কল্যান তাদের নানাভাবে হয়রানি করছেন। গত ১৯ এপ্রিল দীনেশ, তার কাকাতো ভাই কল্যান ও তার স্ত্রী সুস্মিতা ঘোষ তাপসীদের বসত বাড়িতে প্রবেশ করে বসতঘর ও গোয়াল ঘর ভাংচুর করে। এতে বাধা দেওয়ায় তারা তাপসী ও কালিদাসীকে মারপিট করে আহত করে। এঘটনায় পাটকেলঘাটা থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা গ্রহন করেনি। সংবাদ সম্মেলনে তাপসী ও কালিদাসী বলেন দীনেশ ও কল্যান ঘোষ তাদের ভয় দেখিয়ে বলেছেন ‘তাদের এক ভাই সচিব। প্রয়োজনে সব কিছু করে হজম করতে পারবো। এই দাপট দেখিয়ে তারা অনেক সম্পদের মালিক হয়েছেন। এবার তারা তাপসীদের শেষ সম্বলটুকু গ্রাস করতে চায়। তিনি বলেন বিষয়টি সম্পর্কে পাটকেলঘাটা থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় তাপসী ও কালিদাসী আতংকের মধে রয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে তাপসী পুলিশ সুপারের সহযোগিতা কামনা করে এ ঘটনার প্রতিকার দাবি করেছেন।

Facebook Comments
Please follow and like us: