সাতক্ষীরার তালায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে রের্কডীয় সম্পত্তির ধান কেটে নেওয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে রের্কডীয় সম্পত্তির ধান কেটে নেওয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত উক্ত সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সাতক্ষীরার তালা উপজেলার বালিয়াদাহ গ্রামের মারফাতুল্যাহ মোড়লের পুত্র বিলাত আলী মোড়ল।
তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, তালা উপজেলার মাগুরা মৌজার ৩২৫ খতিয়ানের সিএস রের্কডীয় মালিক তৎকালিন জমিদার বিজয় কুমার আড্য গংদের নিকট থেকে ১৯৫৫ সালে (আমার পিতা) মারফাতুল্যাহ মোড়ল ৪ একর ৩ শতক জমি ৩১৯০নং কোবলা দলিল মুলে ক্রয় করেন। ১৯৬২ সালে তিনি এসএ রের্কডের মালিক হন।
পিতার মৃত্যুর পর তার স্ত্রী, ৭ ছেলে ও ৫ মেয়ে ওয়ারেশ সুত্রে ওই জমির মালিক হন। পরবর্তীতে আমি আমার মা, চার ভাই ও তিন বোনের নিকট থকে ২০০৮ সালে ৫১৫৬ নং হেবার ঘোষনাপত্র মুলে ২ একর ১ শতক জমি ক্রয় করি। উক্ত জমি ২০১৪ সালে নামপত্তন করে আমরা খাজনা পরিশোধ করে শান্তিপুর্ণভাবে ভোগ-দখল করে আসছি।
কিন্তু একই উপজেলার বিষুকাটি গ্রামের মৃত মানিক মোড়লের ছেলে নিছার উদ্দিন মোড়ল গংরা মাগুরা এলাকার পুলিশের হাতে আটককৃত চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সঞ্জয়ের নেতৃত্বে জাল কাগজ পত্র (সোলে) তৈরী করে। যা পরবর্তীতে আদালত বাতিল করেন। বর্তমানে তারা উক্ত জমির মালিক দাবী করে দখলের পায়তারাসহ বিভিন্ন সময় মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানী ও জীবনাশের হুমকি দিচ্ছে।
তিনি বলেন, নিছারউদ্দীন গংদের হাত থেকে বাঁচতে তালা থানায় গত ২৭/১০/১৭ তারিখে ১৫/১৫৬ নং একটি মামলা দায়ের করি। এ ব্যাপারে তালা থানায় দফায় দফায় বসাবসি হলেও তারা কোন সঠিক কোন কাগজ-পত্র দেখাতে পারেননি। বিষয়টি নিয়ে সাতক্ষীরা বিজ্ঞ আদালতে একাধিক মামলা চলমান রয়েছে। তিনি বলেন, আমার ভোগদখলীয় জমিতে নিছার মোড়ল গংরা যাহাতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পরে এই মর্মে ১৩৬৮/১৭ নং পিটিশন মোতাবেক তালা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে গত ১৪/১১/১৭ তারিখে বিজ্ঞ আদালত একটি নির্দেশনাও দেন।
তিনি আরো বলেন, এর পর থেকে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার ভোর রাতে আমার জমির ধান কেটে নিয়ে যায়। এ ঘটনা জানার পর আমি তালা থানার পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ধান উদ্ধার করে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা ইনছাফ মোল্যার জিম্মায় রাখেন। অথচ জামায়াত-শিবির ও নাশকতা মামলার আসামী নিছার উদ্দিন মোড়ল গংরা শুক্রবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে তাদের কাটা ধান পুলিশে নিয়ে গেছে মর্মে একটি মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদ সম্মেলন করেছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। প্রকৃত সত্য হল, সেখানে যাতে কোন বিশৃখংলার সৃষ্টি না হয় সেজন্য তালা থানা পুলিশ বিষয়টি নিয়ে শান্তিপূর্নভাবে মীমাংসা করার জন্য ধানগুলো স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতার জিম্মায় রেখেছেন। সংবাদ সম্মেলনে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় বাসিন্দা কবির উদ্দীন, জুলফিকার আলী, মোসলেম আলী, আলেয়া খাতুন, রিপা খাতুন ও রুপবান বিবি প্রমুখ।
এ ব্যাপারে তালা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান জানান, ধান গুলো উদ্ধার করে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতার জিম্মায় রাখা হয়েছে। তিনি আরো জানান, সেখানে যাতে কোন প্রকার বিশৃখংলা না ঘটে সেজন্য থানায় বসে বিষয়টি মীমাংসা করার চেষ্টা চলছে। ##

Facebook Comments
Please follow and like us: