সাতক্ষীরায়  মা’র দখল থেকে সম্পত্তি উদ্ধারের দাবিতে পুত্রের  সংবাদ সম্মেলন!

ক্রাইমবার্তা রিপোট: সাতক্ষীরা ;
সাতক্ষীরায় পৈত্রিক বসতভিটা দখলের জন্য সৎ মা’র বিরুদ্ধে তার সতিনের ছেলেকে মিথ্যে মালায় জড়িয়ে হয়রানি ও নির্যাতন করে বাড়ি ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন জেলার আশাশুনি উপজেলার নাটানা গ্রামের সুদয় মন্ডলের ছেলে মৃণাল কান্তি মন্ডল।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমি, আমার মা ও বোন রতœা মন্ডলকে রেখে বাবা সুমদ মন্ডল নগরঘাটা এলাকার শেফালিকে বিয়ে করেন। তার প্রতিমা নামের একটি মেয়ে রয়েছে। পিতার দ্বিতীয় স্ত্রী হিসাবে শেফালী বাড়ি আসার পর থেকে মা’সহ আমাদের দুই ভাই বোনের উপর নির্মম নির্যাতন শুরু করে। এদিকে পুতুল নাচ দলের নায়িকা হওয়ায় শেফালী স্বামীর সংসারে এসেই আগের মত অসামাজিক কার্যকলাপ শুরু করে। একই সাথে পিতার সম্পত্তিসহ সবকিছু থেকে আমাদেরকে বঞ্চিত করার জন্য ষড়যন্ত্র শুরু করে। স্বামীর সাথে বনিবনা না হওয়ায় আমার বোন রতœা পিতার বাড়িতে এসে আশ্রয় নিলে সৎ মা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। বোনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করাসহ শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করতে থাকে। আমাদের দমিয়ে রাখার জন্য তার মেয়ে প্রতিমা মন্ডলকে মলয় সানা নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে দিয়ে তাকে ঘর জামাই করে রাখে। ঘর জামাই মলয়ের সহযোগিতায় বাড়িতে বিভিন্ন ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ শুরু করলে এর প্রতিবাদ করায় তারা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র করতে থাকে। একপর্যায় অতিষ্ট হয়ে আমরা পৈত্রিক ভিটাবাড়ি ছেড়ে দিয়ে সাতক্ষীরা শহরে এসে পলাশপোল এলাকায় বসবাস শুরু করি। কিন্তু আমার স্বামী পরিত্যাক্তা বোন রতœা পিতার বাড়িতে থেকে সৎ মায়ের সকল অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করে আসছিল।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, পেশাগত কারনে বাবা প্রায় বাড়ির বাইরে থাকার সুযোগে ঘর জামাই মলয় আমার স্বামী পরিত্যাক্তা বোনকে মাঝে মধ্যে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। ভাল চাকুরি দেয়ার নাম করে ঘরজামাই মলয় সানা বিভিন্ন এলাকার অসহায় নারীদেরকে ভারতে পাচার করে থাকে। একই ভাবে মলয় আমার বোনকে ভারতে নিয়ে ভাল কাজ দেয়ারও প্রস্তাব দেয়। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় একদিন বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে নারী পাচারকারি লম্পট মলয় আমার বোনের শ্লীলতাহনির চেষ্টা করে। এসময় রতœা আত্মচিৎকার দিলে সৎ মা শেফালী ও তার মেয়ে প্রতিমা ছুটে এসে ঘটনা শোনার পরও আমার বোনকে দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি জানার পরও আমার বাবা কোন প্রতিবাদ না করে উল্টো সৎ মায়ের পক্ষ নিয়ে আমার মা’কে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এছাড়া সৎ মা পিতার সকল সম্পত্তি নিজের হস্তগত করে রাখায় জন্য আশাশুনি থানাসহ বিভিন্ন স্থানে আমাদের নামে মিথ্যে অভিযোগ দেয়ায় আমরা বাড়িতে উঠতে পারছিনা। ভিটাছাড়া হয়ে বর্তমানে মা ও বোনকে নিয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছি।
তিনি তার পৈত্রিক সম্পত্তি উদ্ধার পূর্বক সৎ’মায়ের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Facebook Comments
Please follow and like us: