গাজীপুর সিটি নির্বাচন হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে বিএনপি ও আওয়ামীলীগ প্রার্থীর আপিল, শুনানি মঙ্গলবার

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোট:   ঢাকা: গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন ৩ মাসের জন্য স্থগিত করে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। সংশ্লিষ্ট শাখা থেকে মামলার নথিপত্র আসতে বিলম্ব হওয়ায় চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এ আদেশ দেন।

সোমবার দুপুরে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে তিনি আপিল করেন। আগামীকাল মামলার শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন, বিএনপিপন্থি আইনজীবী ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল।

আপিলটি আজই চেম্বার বিচারপতির আদালতে উপস্থাপিত হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসান উদ্দিন সরকারের আইনজীবী সানজিদ সিদ্দিকী।

তিনি জানান, আবেদনের জন্য হলফনামা করতে বেলা ১১টার দিকে আদালতের অনুমতি নেয়া হয়। অনুমতি নিয়ে আবেদনটি দায়ের করা হয়েছে। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত তাকে এ অনুমতি প্রদান করেন।

এর আগে রবিবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ছয়টি মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করা গেজেট এবং গাজীপুর সিটি নির্বাচন সংক্রান্ত তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ডোমনা, দক্ষিণ বাড়ৈবাড়ী, পশ্চিম পানিশাইল, দক্ষিণ পানিশাইল, শিবরামপুর ও ডোমনাগ মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত করার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিটটি দায়ের করেছিলেন শিমুলিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা এ বি এম আজহারুল ইসলাম সুরুজ।

আদালত শিমুলিয়া ইউনিয়নের ৬টি মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত করে জারি করা প্রজ্ঞাপন এবং গত ৩ এপ্রিল জারি ঘোষিত নির্বাচন কমিশনের তফসিলকে কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন আদালত।

আগামী ৪ সপ্তাহের মধ্যে স্থানীয় সরকার সচিব, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার, স্থানীয় সরকার বিভাগের (সিটি করপোরেশন-২) উপসচিব, ঢাকা ও গাজীপুর জেলা প্রশাসক, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব (চলতি দায়িত্ব) ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচার জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট বি এম ইলিয়াস (কচি)। তাদের সঙ্গে ছিলেন মামলার ফাইলিং আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ মো. রেজাউর রহমান রেজা। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোখলেছুর রহমান।

———-০—————-

হাসানের পর জাহাঙ্গীরের আপিল

 ঢাকা: গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকারের পর এবার আপিলের আবেদন করলেন আওয়ামী লীগের জাহাঙ্গীর আলম। আজই এর ওপর শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

সোমবার দুপুরে হাসানের আপিলের ঘণ্টা দেড়েকের মধ্যেই আপিল করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। এর আগে তিনি সাংবাদিকদেরকে বলেন, যেকোনো মূল্যে ১৫ মে ভোট হোক, এটাই তিনি চান।

আগামী ১৫ মের ভোটকে সামনে রেখে গাজীপুর যখন প্রচারে মশগুল, সেই সময় রোববার ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ বি এম আজহারুল ইসলাম সুরুজের এক আবেদনে ভোট স্থগিত হয়ে যায় তিন মাসের জন্য।

এই আদেশের পরপর জাহাঙ্গীর এর বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছিলেন। রোববারই তিনি ঢাকায় ছুটে এসে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের পাশাপাশি কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। আর তিনি জাহাঙ্গীরকে আইনিভাবে মোকাবেলার নির্দেশ দিয়েছেন।

সুরুজের ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত হয় ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে। সেই থেকে তিনি নানা সময় হাইকোর্টে এসেছেন। তবে গত ৪ মার্চ এই মৌজাকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হিসেবেই প্রজ্ঞাপন জারি হয়।

গত ১০ এপ্রিল জনাব সুরুজের রিট আবেদন উত্থাপিত হয় বলে খারিজ হয়েছি। সেদিন তার আইনজীবী ছিলেন বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদ। আর রোববার সুরুজ আইনজীবী হিসেবে নেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত সৈয়দ রেজাউর রহমানকে। আর আগের দিন বিফল হয়ে ফিরলেও রোববার তিনি স্থগিতাদেশ পেয়ে যান।

সুরুজ বলেছেন, তিনি তার ছয় মৌজায় ভোট স্থগিত চেয়েছিলেন, গাজীপুরে নয়।

সোমবার সকালে জাহাঙ্গীর টঙ্গীর প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আহসান উল্লাহ মাস্টারের ১৪ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান। ২০০৪ সালের আজকের দিকে টঙ্গীতে জনসভায় প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করা হয় সে সময়ের এই সংসদ সদস্যকে। জাহাঙ্গীরের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হাসান উদ্দিন সরকারের ভাই নুরুল ইসলাম সরকারসহ ছয় জনের ফাঁসির আদেশ হয়েছে এই মামলায়।

আহসান উল্লাহ মাস্টারের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জাহাঙ্গীর আসেন উচ্চ আদালতে। আগের দিন হাইকোর্ট বেঞ্চের আদেশের বিরুদ্ধে আপিলের আবেদন করেন চেম্বার জজ আদালতে।

Facebook Comments
Please follow and like us: