শেখ হাসিনার মেয়াদ খুব বেশি হলে জানুয়ারি পর্যন্ত : দুদু

ক্রাইমবার্তা রিপোট:  ঢাকা: কোনো ভাবেই অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার তাঁর পতন ঠেকাতে পারবেন না এমন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘আজকের এই স্মরণ সভায় উপস্থিত আপনারা (নেতাকর্মীরা) যদি দিন-তারিখ নিতে চান আমি বলে দিতে পারি খুব বেশি হলে ডিসেম্বর আর না হলে জানুয়ারি পর্যন্ত তিনি (হাসিনা) ক্ষমতায় থাকবেন। এক আল্লাহ ছাড়া তাঁর ক্ষমতা রক্ষা করার আর কেউ নাই, কোনো শক্তি নাই, তাঁর পতন হবেই। পুলিশ প্রশাসন দিয়ে কোনো কাজ হবে না।’
এসময় তিনি শেখ হাসিনার পতনের কারণ উল্লেখ করে বলেন, ‘তাঁর (শেখ হাসিনার) পতন হবে এই কারণে যে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে মানুষের ভোটের অধিকার রক্ষার স্বার্থে। গণতন্ত্রের প্রশ্নে, স্বাধীনতার প্রশ্নে, ৩০ লক্ষ লোক শহীদ হয়েছে, দুই লক্ষ মা-বোনের ইজ্জত হানি হয়েছে আমাদের দেশে। গণতন্ত্রের জন্য স্বাধীনতার জন্য যে দেশ স্বাধীন হলো সেটা আপনি (শেখ হাসিনা) কেড়ে নেবেন আর বাংলাদেশের মানুষ তা মেনে নেবে এটা হয় নাকি? এটা প্রত্যাশার কোনো বিষয়?’
মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সাবেক বিএনপি নেতা এম. শামসুল ইসলাম ও জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধানের স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।
ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আজকে যে পুলিশ ভাইয়েরা উলঙ্গ ভাবে তাদেরকে (সরকার) সমর্থন করছে, এর সংখ্যা ১০ ভাগ, ৯০ ভাগই এর বিরুদ্ধে। এদেশে সৎ মানুষের সংখ্যা বেশি, দুর্নীতিযুক্ত মানুষের সংখ্যা খুব কম।’
সরকার পতনের দুটি পথের কথা উল্লেখ করে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘সরকার পতনের দুটি পথ আছে একটি হলো নির্বাচন, আরেকটি গণঅভ্যুত্থান। সরকার যদি মনে করেন নির্বাচন ভণ্ডুল করে আবারও ক্ষমতায় থাকবেন তা হবে অসম্ভব। কোনো ভাবেই এবার তারা (সরকার) ক্ষমতায় থাকতে পারবেন না।’
নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আন্দোলন করতে হবে বেগম জিয়ার জন্য, বেগম জিয়া তিনি তাঁর কাজ করেছেন। তিনি দেশের জন্য ভাবেন, মানুষের জন্য ভাবেন, সংগ্রামের কথা ভাবেন। তিনি অপ্রতিরোধ্য মানুষ হিসেবে জেলে গেছেন।’
আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা কৃষিবিদ মেহিদী হাসান পলাশের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি (জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিংকন, বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মাদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।

Facebook Comments
Please follow and like us: