কলারোয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ব্যবসায়ী ইউনুস নিহত

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোট:  সাতক্ষীরায় কলারোয়ায়  মাদক ভাগাভাগি নিয়ে দুই গ্রপের মধ্যে কথিত  বন্দুকযুদ্ধে ইউনুস আলী দালাল (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শ্যুটার গান, ২ রাউন্ড গুলি ও ৭০ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ।শুক্রবার ভোর রাত দুইটার দিকে কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
নিহত ইউনুস আলী দালাল কলারোয়া উপজেলার দক্ষিণ ভাদিয়ালি গ্রামের আব্দুল্লাহ দালালের ছেলে।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার নাথ জানান, ভোর রাত দুইটার দিকে সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর-বড়ালি পাকা রাস্তার পাশে সীমান্ত এলাকায় দুইদল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে বলে তারা খবর পান। তাৎক্ষণিক পুলিশের একটি টহল দল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে ৫ রাউন্ড ফাঁকা শর্টগানের গুলি ছোড়ে। এতে দুইপক্ষই ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়। পরে বিলের মধ্যে তল্লাসী চালিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ইউনুসকে পাওয়া যায়। এরপর তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শফিকুল ইসলাম তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শ্যুটার গান, দুই রাউন্ড গুলি ও ৭০ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল উদ্ধার করে। তিনি আরও জানান, নিহত ইউনুস আলী দালাল একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি আরো আরো জানান- ‘নিহত ইউনুসের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে ও আদালতে বিচারাধীন। সে পুলিশ, বিজিবিসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ী। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য দুপুরে সাতক্ষীরায় মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

কলারোয়া হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা.শফিকুল ইসলাম জানান- ‘মাথায় গুরুতর জখমপ্রাপ্ত অবস্থায় রাতে জরুরী বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে মৃত ঘোষনা করেন।’

নিহত ইউনুস আলী দালালের পরিবারের দাব তাকে গতকাল কলারোয়া থানা পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। রাতে কথিত বন্ধুক যুদ্ধের কথা বলে তাকে হত্যা করেছে।

Please follow and like us:
Facebook Comments