৯ বছরেও এমপিও হয়নি শ্যামনগরের আঃ কাদের স্কুল এ্যান্ড কলেজ

মোস্তফা কামাল, শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা ঃ সাতক্ষীরার শ্যামনগরের ঐতিহ্যবাহী আটুলিয়া আঃ কাদের স্কুল এ্যান্ড কলেজ প্রতিষ্ঠানটি সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী মাধ্যমিক পর্যায়ে এমপিওভুক্ত হলেও কলেজ পর্যায়ে সরকারী নীতিমাল যথাযথ পূরন থাকা সত্বেও আদৌ ৯ বছরেও এমপিও ভুক্ত হয়নি। তৎকালীন উপজেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী আটুলিয়ার বারবার নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মরহুম জি এম আঃ কাদের ১৯৯৫ সালে সকলের সহযোগিতায় চুনা নদীর ব্রীজ হাট সংলগ্ন আটুলিয়া ইউনিয়নে স্কুলটি নিজ নামীয় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাই ৩ একর জমিতে ২ টি দ্বিতল ভবন ও ১ টি পৃথক টিনের ছাউনি বিল্ডিং, খেলার সুপ্রস্থ মাঠ, শহীদ মিনার, স্মৃতি সৌধ, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ প্লান্ট স্থাপন, একটি পুকুর, নানা প্রজাতির বৃক্ষের শীতল ছায়ার পাকা প্রাচীর বেষ্টিত সুদর্শন প্রধান গেইট সহ সুন্দর পরিবেশে বিদ্যালয়টি স্থাপিত। ১৯৯৬ সালে স্কুল পর্যায়ে এমপিওভুক্ত হয়ে মানবিক, বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা ও ভোকেশনাল ট্রেডে শত শত ছাত্র ছাত্রীরা লেখাপড়া করে ধনী-দরিদ্র পরিবারের সন্তানরাও সরকারী বে-সরকারী পর্যায়ে চাকুরী করছে। অধ্যক্ষ, শিক্ষক মিলনায়তন, হিসাব রক্ষন, শিক্ষার্থীদের পৃথক কমন রুম, পর্যাপ্ত শ্রেণীকক্ষ, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম, বিজ্ঞান ল্যাব, শেখ রাসেল ডিজিটাল কম্পিউটার ল্যাব থাকায় বৈজ্ঞানিক আধুনিক মানসম্মত শিক্ষকরা পাঠদান করায় পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল খুবই সন্তোষজনক। অধ্যক্ষ সুভাষ চন্দ্র মন্ডল জানান, ২০১৮ সালের জেএসসি পরীক্ষায় ৩ জন গোেেল্ডন প্লাস সহ ১০ জন এ প্লাস (৪ জন বৃত্তি প্রাপ্ত), ২০১৮ সালে এসএসসি পরীক্ষায় ৫ জন এ প্লাস সহ ৭৬ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ন হয়েছে। ২০১০ সালে নীতিমালা অনুযায়ী স্কুলটিতে কলেজ শাখায় একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির অনুমতি পেয়ে ২০১৩ সালে প্রথম উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীরা বোর্র্ড পরীক্ষায় ভাল ফলাফল করে। শ্যামনগরের মধ্যে বর্তমানে যতগুলো নন এমপিওভুক্ত কলেজিয়েট স্কুল আছে তার মধ্যে জ্যৈষ্ঠতর দিক থেকে আটুলিয়া আঃ কাদের স্কুল এ্যান্ড কলেজ প্রথম। জিবি সভাপতি প্রতিষ্ঠাতার পুত্র আটুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সালেহ বাবু পিতার নামীয় প্রতিষ্ঠানটির সুনাম অব্যাহত রাখতে নিয়মিত জিবি সদস্যদের মনিটরিং, মিটিং, ক্লাস মনিটারিং সকল প্রকার জাতীয় বিভিন্ন দিবস সমূহ পালনে সরকারী, বে-সরকারী পর্যায়ের বড় কর্তাদের অতিথি করে আনায়ন করে উৎসবমুখর পরিবেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠান পালন করা হয়। হিন্দু ও মুসলিম ধর্মের পৃথক অনুষ্ঠান উদ্যাপন করা হয়। জনবল কাঠামো অনুযায়ী শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগ থাকায় মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে পাঠদান ভাল হওয়ায় ফলাফল সন্তোষজনক অব্যাহত রয়েছে। শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সেক্রেটারী মরহুম চেয়ারম্যান জি.এম আব্দুল কাদেরের এ প্রতিষ্ঠানটি শ্যামনগর-নওয়াবেঁকী পিচ ঢালা প্রধান সড়ক সংলগ্ন হওয়ায় প্রত্যহ হাজার হাজার লোক সুন্দরবন ভ্রমন বিলাসীরাও বাসে বসেও দেখতে পান। অথচ ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিষ্ঠানটি মাধ্যমিক পর্যায়ে এমপিওভুক্ত হলেও কলেজ পর্যায়ে সরকারী নীতিমালা যথাযথ পূরন থাকা সত্বেও আদৌ এমপিওভুক্ত হয়নি। কলেজ পর্যায়ে শিক্ষক কর্মচারীগণ বেতনভুক্ত হতে না পেরে অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছে। শ্যামনগরে একটি হাইস্কুল, ১ টি কলেজ জাতীয়করন থাকলেও কোন কলেজিয়েট স্কুল জাতীয়করন হয়নি। এ প্রতিষ্ঠানটি সরকারি করন অথবা কলেজ পর্যায়ে এমপিও ভুক্ত করতে সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছ

Please follow and like us:
Facebook Comments