দীঘিতে ডুবে ৪ শিশুর মৃত্যু না হত্যা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃচাঁদপুরের হাজীগঞ্জে নিখোঁজের কয়েক ঘণ্টার পর বাড়ির পাশের পুকুরে একে একে ভেসে উঠল চার কিশোরের লাশ। খবর ইউএনবির।

নিহত কিশোররা হলো- রান্ধুনীমুড়া শুকু কমিশনারের বাড়ির ওয়াসিমের প্রথম সংসারের ছেলে রাহুল (১২), দ্বিতীয় সংসারের ছেলে শামীম (১৩), আহছানের ছেলে রায়হান (১৩) ও নজরুল ইসলামের ছেলে লিয়ন (১২)।

জেলার হাজীগঞ্জ পৌরসভার রান্ধুনীমুড়া গ্রামের বৈষ্টের বাড়ির দিঘি থেকে মঙ্গলবার ভোরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় তারা নিখোঁজ হন।

নিহত চার কিশোরের পরিবারের সবাই দিনমজুর। এর মধ্যে নিহত রায়হান রান্ধুনীমুড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি জাবেদুল ইসলাম বলেন, সোমবার সন্ধ্যার আগে ওই দিঘির পাড়ে এই কিশোররা খেলা করছিল। সন্ধ্যার পরও বাড়িতে ফিরে না যাওয়ায় পরিবারের লোকেরা তাদের খুঁজতে থাকে, তাদের সন্ধান চেয়ে এলাকায় মাইকিংও করা হয়। পরে মঙ্গলবার ভোরে দিঘির পানিতে তাদের মরদেহ ভেসে উঠে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে মরদেহগুলো উদ্ধার করে।

ওসি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে খেলার কোনো এক সময়ে তারা দিঘির পানিতে পড়ে তলিয়ে যায়।

তবে পরিবারের লোকেরা জানায়, নিহতরা সবাই সাঁতার জানতো।

ওয়ার্ড কমিশনার মো. শুকু মিয়া বলেন, রাতে মাইকিং করা হয়। ভোরে ওই পুকুরে নামাজের জন্য অজু করতে গিয়ে মৃতদেহগুলো ভাসতে দেখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা এসে মরদেহ গুলো উদ্ধার করে।

পরিবারের লোকদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, নিহত কিশোররা সবাই সাঁতার জানতো।

Please follow and like us:
Facebook Comments