সাতক্ষীরা জেলা তাঁতী লীগের সদস্য সচিব তুহিন, তেীহিদ হাসান ও কাজী মারুফকে পৌর এলাকায় অবাঞ্চিত ঘোষনা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:সাতক্ষীরা পৌর তাঁতী লীগের কমিটি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগে জেলা তাঁতী লীগের সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান তুহিন, তেীহিদ হাসান ও কাজী মারুফকে সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষনা দেন পৌর তাঁতী লীগের সভাপতি নূর জাহান সাদিয়া।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সাতক্ষীরা জেলা তাঁতী লীগের প্রতিষ্ঠার পর থেকে আমি পৌর তাঁতী লীগের দায়িত্ব পালন করে আসছি। গত ১ মার্চ ২০১৮ তারিখে জেলা তাঁতী লীগের সাবেক সভাপতি, সাধারন সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ জেলা কমিটির অধিকাংশ সদস্যের উপস্থিতিতে আমাকে সভাপতি ও শেখ ফিরোজ হোসেনকে সাধারন সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট পৌর তাঁতী লীগের কমিটি অনুমোদন দেয়। এর পর থেকে অক্লান্ত পরিশ্রম করে আমি ও আমার সম্পাদক মিলে ৬টি ওয়ার্ডে পূর্নাঙ্গ কমিটি করেছি। কিন্তু কয়েক মাস আগে মোঃ নাসিমকে অহবায়ক ও মনিরুজ্জামান তুহিনকে সদস্য সচিব করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ঠ সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি ৯০ দিনের জন্য অনুমোদন দেয় কেন্দ্রিয় কমিটি। আমরা যোগাযোগ করলেও সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি আমাদের কোন সহযোগিতা করেনি। এব্যাপারে তাঁতী লীগের কেন্দ্রিয় সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকত হোসেনকে জানালে তিনি বলেন, সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির কাজ হলো শুধুমাত্র সম্মেলনের কাজ করা। তাদের কোন কমিটি ভাঙ্গার বা দেয়ার কোন অনুমতি নেই। সামনে জাতীয় নির্বাচন জননেন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিক নৌকাকে বিজয়ী করার জন্য কাজ করে যাও, আমি তোদের সাথে আছি।
নূর জাহান সাদিয়া অভিযোগ করে বলেন, গত ৪ জুন বিকাল ৪টার দিকে আহবায়ক কমিটির কাজী মারুফ(ভৃতু) ও শেখ তৌহিদ হাসান মটর সাইকেলে পৌর তাঁতী লীগের সাধারন সম্পাদক শেখ ফিরোজের দোকনের সামনে এসে দাড়িয়ে ঈদ খরচ ও সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি অনতে অনেক খরচ হয়ে উল্লেখ করে ৫ তারিখের মধ্যে এক লাখ টাকা দাবি করে। তা না হলে কমিটি ভেঙ্গে দেয়ার হুমকি দিয়ে যায় তার। বিষয়টি জেলা তাঁতী লীগের আহবায়ক নাসিম ভাই ও সাবেক সভাতি শাহিন ভাইকে জানালে তারা টাকা দিতে নিষেধ করেন। কিন্তু আজ বিভিন্ন পত্রিকার মাধ্যমে জানতে পারি যে, জেলা তাঁতী লীগের আহবায়ক, যুগ্ম আহবায়ক ও সদস্য সচিব স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে পৌর কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। সাথে সাথে নাছিম ভাইয়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি কোন কমিটি ভাঙ্গিনি বা ভাঙ্গার নির্দেশ দেইনি। তাছাড়া কেন্দ্র থেকে পূর্ণ নির্দেশ আছে যে, আমরা কোন কমিটি ভাঙ্গতে পারবো না। তোমাদের কমিটি বহাল আছে।
তিনি আরো বলেন, এব্যাপারে তাঁতী লীগের পৌর কমিটির সকল সদস্যদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজ বৃহস্পতিবার থেকে সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় মনিরুজ্জামান তুহিন, তেীহিদ হাসান ও কাজী মারুফকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হলো। একই সাথে তিনি পৌর তাঁতী লীগের সকল নেতা কর্মীকে শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করার আহবান জানান। এবিষয়ে প্রয়োজনে আদালতের স্বরাণাপন্ন হওয়ার কথা জানান তিনি।

 

Facebook Comments
Please follow and like us: