সাতক্ষীরায় বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট ভাইয়ের প্রতিকার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরা প্রেতিনিধি : বড় ভাই কর্তৃক ছোট ভাইয়ের চলাচলের রাস্তা আটকে ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন উত্তরকাটিয়া এলাকার গৌতম কুমার চন্দ্রের স্ত্রী কৃষ্ণারাণী।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার বড় ভাসুর সন্তোষ কুমার একই দলিল মুলে জমি ক্রয় করে বাড়ী ঘর তৈরি করে বসবাস করি। বিগত প্রায় ৫ বছর পূর্বে তার বসবাসের জায়গা বিক্রয় করে অন্যত্র চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সে সময় তিনি বলেন ১০লক্ষ টাকা দাও, বাকী টাকা হিসাব অনুযায়ী রেজিস্ট্রি করার সময় দিলে হবে। আমার স্বামী তার বড় ভাই এর কথা বিশ্বাস করে ১০ লক্ষ টাকা গত ইং ২৯/১২/১৩ সালে প্রদান করে। টাকা গ্রহণের ৬ মাস পরে জমি রেজিষ্ট্রি করে দিবে মর্মে কথা থাকলেও জমি রেজিস্ট্রি করে না দিয়ে তালবাহানা শুরু করে এবং উল্টো আমাদের চলাচলের রাস্তাটুকু আটকে দিয়েছে এবং আমার স্বামীর নামে একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আদালত এই মামলাগুলো তদন্ত পূর্বক মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় খারিজ করে দেন। শুধু তাই না তারপুত্র একজন মাদক সেবনকারী এবং চরিত্রহীন ইতোপূর্বে বাগআচড়ায় তাকে নারী ঘটিত বিষয়ে সেখানকার লোকজন তাকে মারধর করে বেধে রাখে। এধরনের ‘কুকৃতি প্রায়ই ঘটিয়ে থাকে। সে সব সময় নেশা গ্রস্থ হয়ে থাকে। প্রায়ই সময় আমার ভাসুরের পুত্র আমাকে অশুভ ও অশালিন কথাবার্তা বলতে থাকে। আমি লোকজ্জার ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারি না। তিনি আরো বলেন, আমাদের পূর্বে বাড়ী ছিলো যশোর জেলার সোনকুড় গ্রামে। আমার স্বামী ১৯৮২ সালে এখানে চলে আসে। ১৯৮৫ সালের পর থেকে আমার ভাসুর ঐখানে থেকে গ্রামবাসীর সাথে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা অবস্থায় এলাকাবাসী তার বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায় ১৯৮৮ সালে আমার স্বামী কাছে এসে আশ্রয় নেয়। এখনে আমাদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করে যাচ্ছে। গত ১/৬/১৮ তারিখে আমার স্বামী বাড়ি থেকে বাহির হওয়ার সময় আমার ভাসুর সন্তোষ ও তার ছেলে দিপংকর আমার স্বামীকে মারপিট করে এবং তাকে খুন জখমের হুমকি প্রদর্শন করে বলে, তুই বেশি বাড়াবাড়ি করলে তোর কপালে কি আছে তখনি বুঝিয়ে দেবো। এছাড়া আমাকেও অশ¬ীল ভাষায় গালিগালাজ করে। আমরা বর্তমানে তাদের ভয়ে চরম নিরাপত্তহীনতায় দিনাতিপাত করছি। এবিষয়ে তিনি সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Facebook Comments
Please follow and like us: