আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে: ফখরুল#বিএনপির আন্দোলনের ডাক আষাঢ়ের তর্জন-গর্জন সার: কাদের

ক্রাইমবার্তা রিপোটঃঢাকা:  আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় বিএনপি নেতারাখালেদা জিয়ার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের দেখা করার অনুমতি এখনও পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
আজ  শনিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন,  ‘আমরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার জন্য একটি আবেদন করেছি। সেটির কোনও অনুমতি আমরা এখনও পাইনি। আমরা কারাগারের সামনে নেত্রীর সঙ্গে দেখা এবং কথা বলার জন্য যাবো। আশা করছি, আমরা অনুমতি পাবো।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া কারাগারে গুরুতর অসুস্থ। কিন্তু সরকার তার কোনও চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে না। অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে। খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখার জন্য মিথ্যা ও সাজানো মামলায় তাকে কারাবন্দি করে রাখা হয়েছে।’

এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আমাদের আন্দোলন চলমান রয়েছে। বাংলাদেশের জনগণ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে। খালেদা জিয়া জামিন পাওয়ার পরেও সরকার বিভিন্ন ছল-চাতুরির মাধ্যমে তাকে কারাগারে আটকে রেখেছে।’

বাংলাদেশের জনগণ বিষাদময় ঈদ পালন করছে উল্লখ করে তিনি বলেন, ‘দেশের ১৬ কোটি জনগণের নেত্রীকে কারাগারে বন্দি রেখে বিষাদময় মন নিয়ে ঈদের নামাজ ও ঈদ পালন করছে জনগণ।’

মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিশেষ মোনাজাত পালন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন— বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মশাররফ হোসেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, আহম্মেদ আজম খান, ড. জাহিদ হোসেন প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

———–0————–

ক্রাইমবার্তা রিপোটঃনোয়াখালী: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির আন্দোলনের ডাক আষাঢ়ের তর্জন-গর্জনে সার। তাদের আন্দোলনে জনগণ সাড়া দিবে না। বিএনপির তুমুল-জোরদার আন্দোলনের রঙ্গিন খোয়াব কর্পূরের মতো বাতাসে উড়ে যাবে।
শনিবার তার নির্বাচনী এলাকা কোম্পানীগঞ্জে নিজ বাড়িতে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।
শনিবার সকালে ঈদের নামাজ শেষে মন্ত্রী তার নিজ নির্বাচনী এলাকায় দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। পরে তিনি সাংবাদিকদের সাথে এসব কথা বলেন।
বিএনপির আন্দোলনের কোনো ইস্যু নেই। তারা ইস্যু খোঁজার চেষ্টা করছে। বিএনপি তাদের দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে পুঁজি করে আন্দোলনের পাঁয়তারা করছে। এতে তারা রাজনৈতিক মাঠে হাক-ডাক দেওয়ার চেষ্টা করলেও সাধারণ জনগণ কোনো সাড়া দিবে না।
এদিন মন্ত্রীর সাথে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ এলাকার সাধারণ জনগণ ঈদের নামাজ আদায় করেন।

Facebook Comments
Please follow and like us: