আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র নিন্দা-প্রতিবাদ জেইউজে’র

॥ প্রেস বিজ্ঞপ্তি ॥
দৈনিক আমার দেশ সম্পাদক, সাহসী ও নির্ভীক সাংবাদিক মাহমুদুর রহমানের উপর ২২ জুলাই কুষ্টিয়ায় শাসকদল আশ্রিত ছাত্রলীগ-যুবলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোর (জেইউজে)। এছাড়া ঘটনার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি নূর ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক এম. আইউব। বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, ৫০০ ধারার একটি মানহানির মামলায় জামিনের জন্য ২২ জুলাই কুষ্টিয়া আদালতে হাজির হয়েছিলেন মাহমুদুর রহমান। জামিন পেয়ে তিনি ঢাকায় ফেরার প্রস্তুতি নিলে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীরা তার বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে আদালত এলাকায় ঢুকে আক্রমণের চেষ্টা চালায়। এ পরিস্থিতিতে মাহমুদুর রহমান সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এম এম মোর্শেদের আদেশ নিয়ে তারই আদালতে আশ্রয় নেন। কিন্তু বিক্ষোভকারী ছাত্রলীগ-যুবলীগ ক্যাডাররা আদালত এলাকা ঘেরাও করে রাখে। কয়েক ঘণ্টা কোর্টে অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকার পর কোর্ট পুলিশ তাকে ঢাকায় ফেরার কথা বলে বের করে নিয়ে এলে ছাত্রলীগ-যুবলীগের সশস্ত্র ক্যাডাররা তার ওপর হামলা চালিয়ে তার মাথা ও মুখে আঘাত করে সারা শরীর রক্তাক্ত জখম করে দেয়। এসময় তার সফরসঙ্গী বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, প্রকৌশলীদের নেতা ইঞ্জিনিয়ার রিয়াজুল ইসলাম রিজু, কৃষিবিদ নেতা শামীমুর রহমান শামীমসহ সবাইকে আক্রমণ করে মারধর করে হামলাকারীরা। তারা মাহমুদুর রহমানকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার সফরসঙ্গীসহ তাকে হামলা করে রক্তাক্ত জখম করেছে এবং তার গাড়ি ভাংচুর করা হয়েছে।
সাংবাদিক নেতৃদ্বয় আরো বলেন, একজন সম্পাদকের ওপর আদালত চত্বরে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক সমাজসহ সারা দেশের মানুষ হতবাক এবং গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এ ধরনের হামলা স্বাধীন মত প্রকাশের অন্তরায়, গণতন্ত্র এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় চরম বাধা প্রদানের শামিল। এটা কোন ভাবে মেনে নেয়া যায় না।
এই ন্যাক্কারজনক সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান নেতৃদ্বয়। অন্যথায় যশোরের সাংবাদিক সমাজকে সাথে নিয়ে রাজপথে নামার হুশিয়ারি দেন তারা

Facebook Comments
Please follow and like us: