তিন হাজার ইয়াবাসহ আ.লীগ নেতা ও তাঁর স্ত্রী গ্রেপ্তার–নড়াইলে যুবলীগ নেতার গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার–ট্রাকচালককে আটক করে ইয়াবা দিয়ে চালান!

সখীপুরে ইয়াবাসহ আ.লীগ নেতা ও তাঁর স্ত্রী গ্রেপ্তার

ক্রাইমবার্তা ডেস্করিপোট:  টাঙ্গাইলের সখীপুর থেকে তিন হাজার ইয়াবা বড়িসহ আওয়ামী লীগের এক নেতা ও তাঁর স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ওই নেতা বলছেন, তিনি নন, মূলত তাঁর স্ত্রী মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে সখীপুর পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ভাড়া বাসা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আওয়ামী লীগের ওই নেতার নাম ফজলুর রহমান (৫০)। তিনি বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক। তাঁর স্ত্রীর নাম রালিমা শিখা (৪০)। সখীপুর থানার পুলিশ রালিমা শিখার কাছ থেকে তিন হাজার ইয়াবা জব্দ করে। দুপুরের দিকে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শামছুল হক ওই দম্পতিকে আসামি করে মামলা করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রালিমা শিখা গতকাল মঙ্গলবার সকালে কক্সবাজার থেকে ইয়াবার একটি চালান নিয়ে বাসে ওঠেন। রাতে ঢাকায় নামেন। সেখান থেকে আজ সকালে সখীপুরে আসেন। সখীপুরের ওই বাসার ফটকের সামনে থেকে রালিমাকে আটক করা হয়। এ সময় তাঁর দেহ তল্লাশি করে তিন হাজার ইয়াবা পাওয়া যায়। পরে বাসায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ফজলুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে।

ফজলুর রহমান থানা হাজতে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার দ্বিতীয় স্ত্রী রালিমা শিখা মাদক ব্যবসায়ী। তাঁকে এ ব্যবসা থেকে ফেরানোর অনেক চেষ্টা করা হয়েছে। বিনা দোষে পুলিশের হাতে আমি গ্রেপ্তার হলাম।’

বাসাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী অলিদ ইসলাম ফজলুর রহমানের রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম তুহীন আলী বলেন, আদালতে হাজির করে এই দম্পতির বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। তবে আজ রিমান্ড শুনানি হয়নি। দুজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

—————–০——————

নড়াইলে যুবলীগ নেতার গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

 প্রতিনিধি, নড়াইল

নড়াইলনড়াইলে যুবলীগের নেতা তরিকুল ইসলামের (২৮) গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ বুধবার সকালে উপজেলার সীতারামপুর সেতুর পাশ থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত তরিকুল ইসলাম যশোর জেলার বাঘারপাড়া উপজেলার জামদিয়া গ্রামের মিজানুর বিশ্বাসের ছেলে। তিনি জামদিয়া বাজারের একজন সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ী এবং বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।

নড়াইল সদর থানার উপপরিদর্শক মাসুদ রানা বলেন, পথচারীরা সেতুর পাশে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন। পরে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তরিকুলের চাচা বাঘারপাড়া উপজেলার করিমপুর গ্রামের মো. ইমান আলী বলেন, গত শুক্রবার দোকান থেকে সাদাপোশাকধারী পুলিশ তাঁকে তুলে নিয়ে যায়। পরে যশোরের ডিবি পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ডিবি পুলিশ তা অস্বীকার করে। এ বিষয়ে বাঘারপাড়া থানায় জিডি করতে গেলে পুলিশ জিডি নেয়নি। তুলে নেওয়ার পাঁচ দিন পর তাঁর গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া গেল। দলীয় কোন্দলের জন্য তরিকুলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে তাঁরা ধারণা করছেন।

বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুজ্জামান লিটন  বলেন, তরিকুল বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। তিনি যশোর এমএম কলেজ থেকে এমএ পাস করে রাজনীতির পাশাপাশি ব্যবসা করতেন। তাঁর বিরুদ্ধে থানায় কোনো মামলা নেই। মাদকের সঙ্গেও তাঁর কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

ডিবি পুলিশ তরিকুলকে ধরে নিয়ে বিনা কারণে ক্রসফায়ার দিয়ে হত্যা করেছে বলে দাবি করেছেন কামরুজ্জামান লিটন। একই সঙ্গে তিনি এই ঘটনার সঠিক তদন্ত ও বিচার দাবি করেন।

বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মঞ্জুরুল আলম বলেন, নিহত তরিকুলের নামে থানায় কোনো মামলা নেই। এই ঘটনায় কারা জড়িত, তা উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।প্রথম আলো

————-০——————-

ট্রাকচালককে আটক করে ইয়াবা দিয়ে চালান!

  বগুড়া ব্যুরো ০৮ আগস্ট ২০১৮,
ট্রাকচালককে আটক করে ইয়াবা দিয়ে চালান!
প্রতীকী ছবি

বগুড়ার শাজাহানপুরের কৈগাড়ি ফাঁড়ির টিএসআই গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে শাহীন প্রামাণিক (২৫) নামে এক ট্রাকচালককে আটক করে তাকে মাদক দিয়ে চালান দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে উপজেলার বেজোড়া বাশিপাড়া এলাকা থেকে আটক করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

তবে ওই পুলিশ কর্মকর্তা তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

জানা গেছে, শাজাহানপুর উপজেলার বেজোড়া পূর্বপাড়ার মৃত মোস্তফা প্রামাণিকের ছেলে শাহীন প্রামাণিক পেশায় ট্রাকচালক। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি হেলেঞ্চাপাড়া থেকে বাড়ি ফিরছিলেন।

বেজোড়া বাশিপাড়া এলাকায় পৌঁছলে পুলিশ তাকে আটক করে কৈগাড়ি ফাঁড়িতে নিয়ে যায়। পরে তাকে ৩০ পিস ইয়াবাসহ মামলা দিয়ে বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়।

শাহীনের চাচা দুলাল হোসেন ও গ্রামবাসীরা জানান, শাহীন ট্রাক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি কোনো মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত নন। অজ্ঞাত কারণে পুলিশ তাকে আটক করে এবং ইয়াবার মামলা দিয়ে জেলে পাঠায়। এ ঘটনায় গ্রামবাসী ও আত্মীয়স্বজন হতবাক হয়েছেন।

কৈগাড়ি ফাঁড়ির টিএসআই গোলাম মোস্তফা জানান, শাহীন মাদক ব্যবসায়ী। তার কাছে ৩০ পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে।

এ প্রসঙ্গে কৈগাড়ি ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান জানান, এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই।

Facebook Comments
Please follow and like us: