ডিসেম্বর ২২, ২০১৮
নির্বাচনী এলাকায় প্রথমবারের মতো মাশরাফি

ক্রাইমবার্তা রিপোট: নড়াইল-২ আসনে মহাজোটের প্রার্থী মাশরাফি বিন মুর্তজা প্রথমবারের মতো নির্বাচনী এলাকায় প্রবেশ উপলক্ষে লোহাগড়া উপজেলার কালনা ফেরিঘাট থেকে নড়াইল শহর পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার রাস্তার দু’পাশে লাখো জনতার ঢল নামে। উপস্থিত জনতা সকাল থেকে অপেক্ষার পর তাকে ফুলেল সংবর্ধনা জানায়।

শনিবার সকালে মাশরাফি বিন মুর্তজা ঢাকা থেকে সড়কপথে রওনা হয়ে বিকাল ৩টার দিকে নৌকা মার্কার আদলে সাজানো নৌকায় মধুমতি নদী পার হয়ে নির্বাচনী এলাকায় পৌঁছান। এ সময় কালনা ঘাটে সকাল থেকে অপেক্ষমাণ লাখো জনতা ফুল দিয়ে তাকে বরণ করে নেয়।

এ সময় মাশরাফি সংবর্ধনায় উপস্থিত জনতার উদ্দেশে সংক্ষিপ্ত পথসভায় বলেন, আমি আপনাদের সন্তান। প্রধানমন্ত্রী আমাকে নড়াইল-লোহাগড়ার মানুষের সেবা করার জন্য নড়াইল-২ আসনে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন। তাই আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে বিজয়ী করে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবেন।

তিনি এর আগে ওয়ানডে ক্রিকেট খেলা ও পায়ে ইনজুরি থাকায় নড়াইল আসতে না পারার জন্য সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তিনি বলেন, নির্বাচন পর্যন্ত আমি আপনাদের মাঝে থাকব। এ ছাড়া প্রতিটি ইউনিয়নে ইউনিয়নে গণসংযোগে অংশগ্রহণ করব।

তিনি কালনা ঘাট থেকে নড়াইল পর্যন্ত রাস্তার পাশে সকাল থেকে দাঁড়িয়ে থাকা জনতার উদ্দেশে অন্তত দশটি পথসভায় বক্তব্য রাখেন। এ সময় নড়াইল ও লোহাগড়ার সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার আব্দুল হান্নান রুনু, সাজ্জাদ হোসেন মুন্না প্রমুখ।

উল্লেখ্য, নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর মাশরাফি এই প্রথম সপরিবারে তার নড়াইল-২ নির্বাচনী এলাকায় আগমন করলেন। এর আগে গত ২০ ডিসেম্বর তিনি সুধাসদন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে লোহাগড়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের নির্বাচনী জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নড়াইলবাসীর শুভেচ্ছা বিনিময় করে নৌকা মার্কায় ভোট প্রার্থনা করেন

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


Thia is area 1

this is area2