ধর্ষকের গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুলিশে দিলো গ্রামবাসী

ক্রাইমবার্তা রিপোটঃ  রংপুর জেলার পীরগঞ্জের আদিবাসী পল্লীতে ৬ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ৩ সন্তানের জনক লম্পট ওই ধর্ষককে আটক পূর্বক উত্তম-মধ্যম দিয়ে গলায় জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ শেষে পুলিশে দিয়েছে গ্রামবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চৈত্রকোল ইউনিয়নের খালিশা গ্রামে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবতী কৃষ্ণপুর গ্রামের জলিউস তির্কীর পুত্র ৩ সন্তানের জনক রুবেল তির্কী ৩/৪ দিন পূর্বে তার শ্বশুরবাড়ী পীরগঞ্জের চৈত্রকোল গ্রামে বেড়াতে আসে। এরই সূত্র ধরে বুধবার সন্ধ্যায় রুবেল তির্কী পাশ্ববর্তী খালিশা গ্রামে বেড়াতে এসে মিশন আদিবাসী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণীর ছাত্রী ও খালিশা গ্রামের মহাদেব কুজুরের কন্যা টাবিতা কুজুরকে আখ ভেঙ্গে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গ্রামের পাশ্ববর্তী আখ ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে বলপূর্বক ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এদিকে শিশুটির আতœচিৎকারে রক্তাক্ত অবস্থায় পথচারী লোকজন উদ্ধার করে রাতেই পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সংবাদটি গ্রামসহ আশপাশের লোকজনের মধ্যে জানাজানি হলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত গ্রামবাসী বৃহস্পতিবার দুপুরে রুবেল তির্কীকে তার শ্বশুবাড়ী চৈত্রকোল গ্রাম থেকে আটক করে উত্তম-মধ্যম দিয়ে গলায় জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ শেষে পুলিশে দেয়।

Facebook Comments
Please follow and like us: