ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৯
ইসলামবিদ্বেষী বই লিখতে গিয়ে নিজেই মুসলিম হলেন ডাচ্‌ রাজনীতিবিদ

ইসলাম ধর্মের কট্টর সমালোচক নেদারল্যান্ডসের সাবেক সংসদ সদস্য ও উগ্র ডানপন্থি রাজনীতিবিদ জোরাম ভ্যান ক্ল্যাভারেন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। এক সময় এই ক্ল্যাভারেনই ইসলামকে শতাব্দীর সবচেয়ে বড় দুর্যোগ আখ্যা দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, একশ’ বছরের নেদারল্যান্ডসে আঘাত হানা সবচেয়ে বড় দুর্যোগের নাম হলো ইসলাম। এই বিদ্বেষী মনোভাব থেকেই তিনি ইসলামের সমালোচনা করে একটি বই লিখতে শুরু করেন। কিন্তু এটি তার জীবনে যুগান্তকারী পরিবর্তন ঘটিয়েছে। ইসলাম সম্পর্কে নিজের মনোভাব তো বদলেছেনই, একই সঙ্গে নিজের পূর্বপুরুষের ধর্ম ছেড়ে ইসলাম গ্রহণ করেছেন তিনি। বৃটিশ দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়েছে, জোরাম ক্ল্যাভারেন ছিলেন নেদারল্যান্ডসের কট্টর ইসলামবিদ্বেষী রাজনীতিক গ্রিট উইল্ডার্সের ডান হাত। সব সময় তিনি ইসলামের দোষ-ত্রুটি খুঁজে বেড়াতেন।

বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে অযাচিতভাবে ইসলামকে দোষারোপ করতেন। এর ধারাবাহিকতায় তিনি ইসলামের সমালোচনা করে একটি গবেষণাধর্মী বই লেখার উদ্যোগ নেন। কিন্তু এই গবেষণা ইসলাম সম্পর্কে তার ধারণা পুরোপুরি বদলে দেয়। ইসলাম গ্রহণের পর ৪০ বছর বয়সী জোরাম ভ্যান ক্ল্যাভারেন বলেন, তিনি তার মন পরিবর্তন করেছেন এবং ইসলামবিরোধী একটি বই লিখতে গিয়ে তিনি নিজেকে বদলে নিয়েছেন। মঙ্গলবার তিনি নেদারল্যান্ডসের একটি রেডিও চ্যানেলকে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বহু কিছুর ভেতর দিয়ে তিনি ইসলামের ছায়াতলে এসেছেন। ক্ল্যাভারেন জানান, আমি ইসলামবিরোধী বই লিখতে গিয়ে বহু জিনিসের পাল্টা যুক্তি-তর্ক তুলে ধরেছি। এগুলো আমার দৃষ্টিভঙ্গিকে নাড়া দিয়েছে। ভ্যান ক্ল্যাভারেন ছোটবেলা থেকেই অর্থডক্স প্রোটেস্ট্যান্ট খ্রিষ্টান পরিবেশে বেড়ে ওঠেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, বহুদিন ধরেই আমি এমন কিছু খুঁজছিলাম। ইসলাম গ্রহণের পর মনে হচ্ছে আমি আমার পথের ঠিকানা পেয়েছি। নেদারল্যান্ডস সংসদের নিম্নকক্ষে দীর্ঘদিন ধরে ভ্যান ক্ল্যাভারেন বিরামহীনভাবে ইসলামের বিরুদ্ধে প্রচারণা  চালিয়েছেন। ২০১০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত তিনি নেদারল্যান্ডসের সংসদ সদস্য ছিলেন।

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


www.crimebarta.com সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবু শোয়েব এবেল

ইউনাইর্টেড প্রির্ন্টাস,হোল্ডিং নং-০, দোকান নং-০( জাহান প্রির্ন্টস প্রেস),শহীদ নাজমুল সরণী,পাকাপুলের মোড়,সাতক্ষীরা। মোবাইল: ০১৭১৫-১৪৪৮৮৪,০১৭১২৩৩৩২৯৯ e-mail: crimebarta@gmail.com