মামী-ভাগ্নের পরকীয়া প্রাণ গেল নানার

ক্রাইমর্বাতা রিপোট: কুষ্টিয়ার খোকসায় পুত্রবধূর সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা দেখে ফেলায় নাতির ছুরিকাঘাতে মজিবুর রহমান (৭৫)  নিহত হয়েছেন। গত রোববার গভীর রাতে উপজেলার সোমসপুর ইউনিয়নের সন্তোষপুর গ্রামে এ ঘটনায় অভিযুক্ত নাতি নাঈম (২১) ও নিহতের পুত্রবধূ সামিয়া (৩৪) কে আটক করেছে পুলিশ।

খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নাঈম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। তিনি আরো বলেন, বেশকিছুদিন ধরেই নিহত মজিবুর রহমানের বড় মেয়ের বড় ছেলে নাঈমের সঙ্গে মেজ ছেলের স্ত্রী সামিয়ার অবৈধ সম্পর্ক চলছিল। রোববার গভীর রাতে নাঈম নানা বাড়ি যায়। এ সময় মেজ মামা মাসুদের অনুপস্থিতিতে নাঈম মামি সামিয়ার সঙ্গে মেলামেশায় লিপ্ত হয়।

এ ঘটনা নানা মজিবুর রহমান দেখে ফেলে। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে যাবে এই ভয়ে নাঈম তার নানাকে ঘর থেকে বারান্দায় বের করে এনে বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে পরিবারের অন্যরা মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ পেয়ে পুলিশ রাতেই নাঈমকে তার নিজ বাড়ি কুমারখালী থেকে আটক করে এবং তার স্বীকারোক্তিতে নিহত মজিবুর রহমানের বাড়ি থেকে তার পুত্রবধূ সামিয়াকেও আটক করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় হত্যাকাণ্ডের দায়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

Facebook Comments
Please follow and like us: