সোনাগাজীর ওসির বিরুদ্ধে সাইবার অপরাধ আইনে মামলা#কাউন্সিলর মাকসুদ আলম ৫ দিনের রিমান্ডে

ক্রাইমর্বাতা রির্পোট:     সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন এর বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে মামলার ফাইল পিটিশন হয়েছে। সোমবার সকালে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বাদি হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ট্রাইব্যুনালে মামলার আবেদন করেন। দুপুর দুটার পর পিটিশনের ওপর শুনানি হবে।

গত ২৭ মার্চ মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাতা জাহান রাফি অধ্যক্ষ সিরাজের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করতে সোনাগাজী থানায় যান। এসময় তাকে আপত্তিকর সব প্রশ্ন করেন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন। রাফির বক্তব্যটি তিনি মোবাইল ক্যামেরায় ভিডিও করেন। ৬ এপ্রিল রাফির মৃত্যুর পর ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

সোনাগাজীর ওসির বিরুদ্ধে রাফিকে আপত্তিকর প্রশ্ন এবং অসং উদ্দেশ্যে ভিডিও ধারন করে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে দায়িত্বে গাফিলতি এবং আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে প্রতিষ্ঠা করার যে সব অভিযোগ উঠেছে, সে ব্যাপারে এখানে কোন উল্লেখ নেই।।

নুসরাত হত্যা

কাউন্সিলর মাকসুদ আলম ৫ দিনের রিমান্ডে

সোনাগাজী পৌর কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা মাকসুদ আলম

মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় সোনাগাজী পৌর কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা মাকসুদ আলমের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সরাফ উদ্দিন আহম্মেদ এ আদেশ দেন।

কোর্ট ইনসপেক্টর গোলাম জিলানী জানান, সোনাগাজীতে মাদরাসা ছাত্রীর গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার ৪ নম্বর আসামি পৌর কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ আলম।

তাকে আদালতে তুলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পদির্শক (ওসি) মো. শাহ আলম ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত তাকে পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আলোচিত এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও পিবিআই। এদের মধ্যে ১১ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড দিয়েছে আদালত।

Facebook Comments
Please follow and like us: