এপ্রিল ৩০, ২০১৯
তালা হাসপাতালে ডাক্তার সংকট :এর পরও সেবা দেয়ার চেষ্টা

আকবর হোসেন,তালাঃ প্রবল ডাক্তার সংকট হলেও সাতক্ষীরা তালায় ৫০ শষ্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বর্তমানে ৩৪ জনের বিপরীদে ৪ জন ডাক্তার থাকলেও, নিরবিচ্ছিনভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছে হাসপাতালের চিকিৎসক,নার্সসহ সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা । মানুষের মনে ফিরেছে স্বস্তি । তালা হাসপাতালে এখন নিয়মিত বাহিরের ডাক্তার দ্বারা অল্প খরচে এপেনডি সাইড, সিজার, গল্ব ব্লাডারে পাথর অপসারনসহ জটিল অপারেশন করা হচ্ছে ।
সরজমিনে গিয়ে ৩০ এপ্রিল মঙ্গলবার বেলা ১১.৩০ ঘটিকার সময় দেখা যায়, তালা ৫০ শষ্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চারিদিকে কোথাও কোন ময়লা আবর্জনা নাই । ওয়ার্ডের বাতরুমের ভিতরে দেখা যায় বাতরুম পরিস্কার । বাতরুমের বাহিরে পাপসসহ জুতা রাখা আছে । রুগিরা কেউ বাতরুমের জুতা ছাড়া ভিতরে যাচ্ছে না । রুগির ওয়ার্ড হতে শুরু করে সকল জায়গা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা । ডাক্তাররা সুন্দর সুশৃংখলভাবে রুগি দেখছেন । নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে ১০০% উপস্থিতি নিশ্চিতসহ সবাই হাসপাতালের যার যার কার্যক্রম করে যাচ্ছেন । বিশেষ করে হাসপাতালের প্রধান সহকারী হাফিজুর রহমান এবং স্বাস্থ্য সহকারী মীর মহাসিন হোসেন নিদিষ্ট সময়ের আগেই হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে সবাইকে তদারকিসহ তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন । ৩৪ জনের বিপরীদে ৪জন ডাক্তার থাকলের হাসপাতালের ডাক্তাররা হাসিমুখে রগি দেখছেন । রুগি দেখার মানুষিকতা প্রবল । রান্না ঘরে গিয়ে দেখা যায়, রান্না ঘরে পরিস্কার পরিছন্নের মান ভাল । খাবার পাকানোর জায়গা অত্যান্ত পরিস্কার । তবে কাঠ দিয়ে রান্নার ফলে, রান্নার স্থানে রাখা কাঠে যে কোন সময় আগুন ধরে বিপদ হতে পারে ।
এ বিষয়ে হাসপাতালের প্রধান সহকারী হাফিজুর রহমান বলেন,আমরা কন্ট্রাকটারকে বলেছি গ্যাস দেওয়ার কথা । অতিদ্রুত এর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে । হাফিজুর রহমান আরও বলেন, আমরা সর্বদা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি তালা হাসপাতালের চিকিৎসা সেবাসহ সকল ক্ষেত্রে সর্বোচ্ছ সেবা দিতে । যাতে তালা হাসপাতালটি সাতক্ষীরা জেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ হতে পারে । তিনি আরও বলেন, তালা হাসপাতালে এখন নিয়মিত বাহিরের ডাক্তার দ্বারা অল্প খরচে এপেনডি সাইড, সিজার, গল্ব ব্লাডারে পাথর অপসারনসহ জটিল অপারেশন করা হচ্ছে ।

হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ কুদরতই-খোদা বলেন, আমার রুগি দেখার কথা না থাকলেও নিয়মিত রুগি দেখছি । ডাক্তারের স্বল্পতার কারনে সাধ আছে সাধ্যনাই । মোঃ কুদরত-ই-খোদা,প্রধান সহকারী মোঃ হাফিজুর রহমান,স্বাস্থ্য পরিদর্শক মীর মহাসীন হোসেন বলেন, আমরা সর্বক্ষন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি হাসপাতালে আরও কিভাবে রুগির সেবা দেয়া যায় ।
উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার বলেন, তালা হাসপাতালের সেবার মান অনেক ভাল । বিশেষকরে হাসপাতালের নার্সদের সেবা দেওয়ার মানুষিকতা অনেক চমৎকার । উপজেলার সাড়ে ৩লক্ষ লোকের চিকিৎসা সেবা দেওয়া এত অল্প ডাক্তার দ্বারা পুরোপুরি চিকিৎসা সেবা দেয়া সম্ভব না । তিনি খুলনা বিভাগীয় কমিশনারসহ সাতক্ষীরার সিভিল সার্জনকে তালা হাসপাতালে ডাক্তার বৃদ্ধিসহ পরিছন্ন কর্মী দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন ।

 

Facebook Comments
Please follow and like us:
একই রকম সংবাদ


Thia is area 1

this is area2