১০ ঘন্টায় শাকিব-অপুর ছেলে আব্রাহামের কতো ফেসবুক আইডি!

ক্রাইমবার্তা বিনোদন ডেস্ক:দেশের জনপ্রিয় দুই নায়ক নায়িকা শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিরোধের মাঝখান দিয়ে পর্দায় এসেছে তাদের সন্তান আব্রাহাম খান জয়। আর ফুটফুটে শিশুটিকে নিয়ে দেশের মানুষেরও আগ্রহ কম তৈরী হয়নি। তার প্রমাণই জানান দিচ্ছেন ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা। ইতোমধ্যে বাংলা ও ইংরেজিতে এই শিশুর নামে অসংখ্য ফেইসবুক একাউন্ট ও পেইজ খুলে ফেলেছেন ভক্তরা।15

টিভিতে আসার ২৪ ঘণ্টা না পেরুতেই আব্রাহাম খান জয় নামে ফেইসবুক আইডি আর পেইজে ছেয়ে গেছে। যার বেশীরভাগ গত ১০ ঘণ্টার মধ্যে খোলা। আইডি ও পেজের কোনওটিকে ১/২ হাজার লাইক আবার কোনওটিতে কয়েক হাজার লাইক। ঢালিউডের জনপ্রিয় তারকা জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের নয় বছরের বিবাহিত জীবনে গত বছর সেপ্টেম্বরে সবার অজান্তেই ভারতে জন্মগ্রহণ করে তাদের একমাত্র শিশু সন্তান আব্রাহাম খান জয়।
এদিকে গত দুদিন নানা ‘কাঁদা ছোড়াছুড়ি’র পর মঙ্গলবার একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলকে শাকিব খান জানান তিনি অপুকে বউ হিসেবে ঘরে তুলে নিতে রাজি আছেন। শাকিব বলেন, ‘শুধু আমার ছেলে আব্রাহামের জন্যই অনেক কিছু মেনে নিয়েছি। বিকজ আই লাভ মাই সন। অপু যেহেতু আমার স্ত্রী, তাই বিতর্ক আর না বাড়িয়ে আমি ওকে মন থেকে ক্ষমা করে দিয়েছি। কারণ অপু আমার স্ত্রী এবং সন্তানের মা।’
শাকিব খানের বন্ধু ও চলচ্চিত্র প্রযোজক ইকবাল হোসেন জয় জানিয়েছেন, শাকিব তার মায়ের সাথে কথা বলেছেন। তার মা অপুকে বউ হিসেবে মেনে নিতে রাজি- সাংবাদিকদের তিনি এমনটাই জানিয়েছেন। তবে অপু বিশ্বাস বলেন, “আমি এখনো এগুলোর কোন কিছুই শুনিনি। তবে শাকিব তার ছেলেকে মেনে নিয়েছে, তাতে আমি খুশি।” সমঝোতার হলে শাকিব যেভাবে বলবেন সেভাবে চলবেন বললেন অপু বিশ্বাস। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পরিবর্তনের সাথে ফোনালাপে এ কথা বলেন তিনি।
ইকবাল হোসেন জয় আরো বলেন, ‘শাকিবের তরফ থেকে সমঝোতা হচ্ছে, শুক্রবার অপুকে তার সন্তানসহ আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নিবেন।’ বিষয়টিও জানেন না অপু। “আমার নিজের কোন চাওয়া-পাওয়া নেই। যা ছিল তা অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে। নয়-দশ মাস সন্তান নিয়ে কষ্ট করেছি। শাকিব চাইলে তার কথামত চলব। এতে করে আমাদের সন্তানের ভাল হলেই আমি খুশি।”
এদিকে শ্বশুরবাড়ির মধ্যে শাকিবের বোন আব্রাহামকে বেশি আদর করেন বললেন অপু। শ্বশুরবাড়ির যাওয়ার কথা নানা মহল থেকে শুনলেও এখনো শাকিবের কাছ থেকে কোন ফোন পাননি। অপেক্ষায় আছেন শাকিবের ফোনের।

Facebook Comments
Please follow and like us: