শনিবার , ৪ জুলাই ২০২০

সানিকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন অভিনেত্রী সেলিনা

ক্রাইমবার্তা বিনোদন ডেস্ক:সদ্য ৩৬ বছরে পা রেখেছেন সাবেক পর্নস্টার ও বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওন। পর্ন দুনিয়াকে বিদায় জানানোর পর সানি পাড়ি জমান ভারতে।
বলিউডে নিজেকে ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠিত করে যাচ্ছেন সানি। তবে তার শুরুর দিকটা খুব সহজ ছিল না।

সানি যখন মুম্বাইয়ে প্রথম যান তখন এক বলিউড অভিনেত্রীর বাড়িতেই ভাড়াটে হিসেবে উঠেছিলেন। তবে কিছুদিন পরই তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়।

ঘরদোর নোংরা করার অভিযোগে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেন বাড়ির মালকিন।

কে সেই নায়িকা, যার ভাড়াটে ছিলেন সানি? তিনি আর কেউ নন, প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া এবং ‘হে বেবি’ কিংবা ‘গোলমাল রিটার্নস’ খ্যাত সেলিনা জেটলি।

২০১১-তে ‘বিগ বস’-এ যোগদানের সূত্রে ভারতের মাটিতে পা রাখেন সানি। কিছুটা আলাপ জমেছিল সেলিনা জেটলির সঙ্গে। সেই সেলিনাই প্রাক্তন নীল তারকাকে প্রস্তাব দেন যে, সানি চাইলে সেলিনার অন্ধেরির ফ্ল্যাটটিতে ভাড়াটে হিসেবে থাকতে পারেন। রাজি হয়ে যান সানি। সেলিনার ফ্ল্যাটে ভাড়ার ভিত্তিতে থাকতে শুরু করেন সানি এবং তার স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার।

কয়েকদিন পর আচমকাই নিজের ফ্ল্যাটে সারপ্রাইজ ভিজিটে যান সেলিনা। গিয়ে চোখ কপালে ওঠে তার। দেখেন, ঘরদোর অসম্ভব নোংরা করে রেখেছেন সানি এবং ড্যানি। বাথরুমে গিয়ে দেখতে পান, মেঝেয় রীতিমতো শ্যাওলা জমেছে। বাড়িতে থাকা সেলিনার পুরনো আসবাবপত্র ঠেলে বারান্দায় পাঠিয়ে দিয়েছেন সানি। রোদেজলে সেগুলো নষ্ট হচ্ছে। সেই সঙ্গে ঘরের মার্বেল ফ্লোর জায়গায় জায়গায় ফেটে গিয়েছে। এমনকী সেলিনার অনুমতি না নিয়েই বাড়িতে সিসিটিভি পর্যন্ত বসিয়ে নিয়েছেন সানি।

এ সমস্ত দেখেই খেপে যান সেলিনা। একেবারে আইনি ব্যবস্থা নেন সানির বিরুদ্ধে। সানিকে ঘর ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ নিয়ে আসেন আদালত থেকে। শেষমেশ বাড়ি ছেড়ে দিতে বাধ্য হন সানি আর ড্যানিয়েল।

এই সমস্ত ঘটনার প্রসঙ্গ অবশ্য সানি বা সেলিনা— কেউই প্রকাশ্যে উল্লেখ করেন না। কিন্তু বলিউডের অন্দরমহলে কান পাতলে এখনও শোনা যায় সেলিনার বাড়ি থেকে সানিকে বের করে দেয়ার কাহিনি।

বর্তমানে অবশ্য জুহুতে নিজস্ব ফ্ল্যাট কিনে নিয়েছেন সানি। সেখানেই রয়েছেন স্বামী ড্যানিয়েলের সঙ্গে।

 

About ক্রাইমবার্তা ডটকম

Check Also

করোনায় আত্নবিশ্বাসি হতে হবে: সাতক্ষীরার আমিন খান

ক্রাইমর্বাতা ডেস্করিপোট:  চিত্রনায়ক আমিন খান।  তার গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরা জে লার কালিগঞ্জ উপজেলায়।১৯৯৩ সালে মুক্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *