রবিবার , ৫ জুলাই ২০২০

আমি তো নাঈম আশরাফকে চিনিই না

ক্রাইমবার্তা বিনোদন ডেস্ক:বনানী ধর্ষণকাণ্ডে তাকে ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলা প্রচারণাকে ভিত্তিহীন হিসেবে অভিহিত করেছেন নবীন চিত্রনায়িকা রাহা তানহা খান। তিনি  বলেন, বনানীর ওই ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই। আমার সঙ্গে নাঈম আশরাফেরও কোনো সম্পর্ক নেই।

বন্ধুদের সঙ্গে একটা ছবিতে সে ছিল। তাও অন্য একটি অনুষ্ঠানের। আর সেটা নিয়েই গুজব ছড়ানো হচ্ছে আমি ওই ধর্ষণের ঘটনার শিকার। দুই ধর্ষিত তরুণীর একজনও আমি নই। আমি ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না কেন আমাকে এর ভেতর জড়ানো হলো। আমি তো নাঈম আশরাফকেই চিনি না। গত শনিবার রাত থেকে রাহার সঙ্গে ধর্ষক নাঈম আশরাফের একটি সেলফি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। রাহা বলেন, বন্ধুরা মিলে একটি রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়েছিলাম। সেখানে আশরাফ আমার কাছে এসে বলে যে, সে আমাকে নেহা কক্করের একটি অনুষ্ঠানে ড্যান্স করার জন্য ফোন দিয়েছিল। কিন্তু আমি রেসপন্স করিনি। ওইদিনই আলাপের একপর্যায়ে সে আমার সঙ্গে ছবি তুলতে চায়। প্রকাশিত ছবিটি সে সময়েই তোলা। আমি মিডিয়াতে কাজ করি। অনেকেই দেখা হলে আমার সঙ্গে ছবি তোলেন। তাদের মধ্যে কে ভালো কে মন্দ এটা তো বোঝার উপায় নেই। রাহা আরো বলেন, ছবিটি প্রকাশের পর আমি সামাজিকভাবে হেয় হয়েছি। সবার প্রতি আমার একটাই চাওয়া আমাদের পরিবার ও সামাজিক একটা অবস্থান রয়েছে। তাই কোনো গুজব ছড়ানোর আগে বিষয়টি সবার খেয়াল করা দরকার। এদিকে যেসব পোর্টাল/পেজ থেকে রাহার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানান তিনি। প্রসঙ্গক্রমে রাহা আরো বলেন, আমি ভাবছি থানায় জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করবো। কিন্তু এখনো কারা বা কোন লিংক থেকে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে তাদের শনাক্ত করতে পারিনি। সব হাতে পেলে তবেই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। আমি সত্যিই খুব অসুস্থ হয়ে পড়ছি। আমার পরিবার ও চারপাশের অনেকে বিষয়টি নিয়ে ভুল বুঝছে। কটু কথাও শুনতে হচ্ছে। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছি। আমার এখান থেকে যথা শিগগিরই পরিত্রাণ দরকার।

 

About ক্রাইমবার্তা ডটকম

Check Also

করোনায় আত্নবিশ্বাসি হতে হবে: সাতক্ষীরার আমিন খান

ক্রাইমর্বাতা ডেস্করিপোট:  চিত্রনায়ক আমিন খান।  তার গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরা জে লার কালিগঞ্জ উপজেলায়।১৯৯৩ সালে মুক্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *